শেকৃবিতে অত্যাধুনিক ফ্যাব ল্যাব

রাকিব খান রাকিব খান , শেকৃবি প্রতিনিধি শেকৃবি
প্রকাশিত: ০৩:৩৭ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেকৃবি) ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া গবেষণা কেন্দ্রের চতুর্থ তলায় প্রতিস্থাপিত হয়েছে অত্যাধুনিক ফ্যাব (এফএবি) ল্যাব। ফ্যাব ল্যাব মূলত এক ধরনের ওয়ার্কশপ যেখানে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ধরনের পণ্য উৎপাদন করা সম্ভব। গবেষণা, কৃষিখাতে ব্যবহৃত বিভিন্ন তৈজসপত্রসহ দৈনন্দিন জীবনের দরকারি বিভিন্ন মূল্যবান জিনিসপত্র সাশ্রয়ী খরচে অনায়াসে তৈরি করা যায় এই ল্যাবে।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) কর্তৃক হেকেপ প্রকল্পের অধীনে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে এই ল্যাব স্থাপিত হয়। দুই বছর মেয়াদি এ প্রকল্পটির কার্যক্রম শুরু হয় ২০১৬ সালে এবং সমাপ্ত হয় ২০১৮ সালে। ল্যাবটির সার্বিক তত্ত্বাবধান করছেন শেকৃবির উদ্যানতত্ত্ব বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আবুল হাসনাত এম সোলায়মান এবং ল্যাব-ইনচার্জ হিসেবে আছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী এস এম এনামুল আরেফিন।

ল্যাবটিতে থ্রিডি প্রিন্টার, লেজার কাটার, সিএনসি মিলিং মেশিন, ভিনাইল কাটারসহ ছোটবড় বেশকিছু মূল্যবান যন্ত্রপাতি রয়েছে।

Lab-2

ড. আবুল হাসনাত এম সোলায়মান জানান, এই ল্যাবে বর্তমানে ২২ জন শিক্ষার্থী সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। আরও অনেকেই কাজ করতে আগ্রহ দেখাচ্ছে। এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের লোকজন যেমন-স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গেও এই ল্যাবকে পরিচিত করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। উদ্যোক্তারাও রকমারি পণ্য উদ্ভাবন ও উৎপাদনের লক্ষ্যে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে বর্তমানে ৮টি ফ্যাব ল্যাব আছে। তাদের মধ্যে একটি শেকৃবিতে।’ উৎপাদনমুখী ও উদ্ভাবনী কর্মকাণ্ডে ফ্যাব ল্যাব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে বলে জানান তিনি।

ফ্যাব ল্যাবকে ঘিরে বিস্তৃত পরিকল্পনার কথা জানিয়ে ড. আবুল হাসনাত এম সোলায়মান বলেন, ‘এই ল্যাব শুধু পণ্য উৎপাদনেই সীমাবদ্ধ নয়। একজন মানুষকে মার্জিত ও সুনাগরিক হতেও সহায়তা করে। মূল্যবান যেসব পণ্য বিদেশ থেকে চড়া মূল্যে আমদানি করা হয় স্বল্প খরচে দেশেই এই ল্যাবে তা উৎপাদন করা সম্ভব।’

এসআর/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]