শেকৃবিতে চিংড়ি রোগ নির্ণয় প্রশিক্ষণ

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:১৬ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৯

দেশের ২য় গুরুত্বপূর্ণ রফতানি পণ্য চিংড়ি সম্পদের সার্বিক উন্নয়নে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে চিংড়ি রোগ নির্ণয় প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। একোয়াটিক এনিম্যাল হেলথ ম্যানেজমেন্ট বিভাগ ও ফিব্রো এনিম্যাল হেলথ কর্পোরেশনের যৌথ উদ্যোগে দুই দিনব্যপী এ প্রশিক্ষণ শেষ হয় বুধবার (২১ আগস্ট)।

কর্মশালায় দেশের স্বনামধন্য ও শীর্ষস্থানীয় ফিশ ফিড উৎপাদনকারী ৭টি প্রতিষ্ঠানের ১৮ প্রশিক্ষণার্থী অংশ নেন। ভাইরাস ও রোগ-বালাইমুক্ত চিংড়ি পোনা উৎপাদনের লক্ষ্যে দিনব্যাপী চিংড়ি রোগের লক্ষণসমূহ, নমুনা ও তথ্য সংগ্রহ, পিসিআরের মাধ্যমে রোগ নির্ণয় পদ্ধতি ও ফলাফলসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাত্ত্বিক প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

প্রোভেট রিসোর্সেস লিমিটেডের পরিচালক ডা. শামীম আহমেদের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. সেকেন্দার আলী।

আলোচক ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ফাইব্রো অ্যাকুয়া হেলথ ম্যানেজমেন্ট বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যালান হেরিস, ফাইব্রো অ্যাকুয়া এশিয়া প্যাসিফিকের টেকনিক্যাল ম্যানেজার জোয়াও সান্দোস। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ফিশারিজ, একোয়াকালচার অ্যান্ড মেরিন সায়েন্স অনুষদের প্রফেসর ড. কাজী আহসান হাবীব।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ বলেন, ‘এ ধরনের প্রশিক্ষণ মৎস্য খাতের জন্য খুবই উপকারী। চিংড়ি বাংলাদেশের প্রধান রফতানি মৎস্য সম্পদ। তাই মাঠ পর্যায়ে চিংড়ির রোগ নির্ণয় করতে পারলে সহজেই গুণগত মান সম্পন্ন চিংড়ি ও মাছ উৎপাদন করা সম্ভব হবে এবং চাষির ক্ষতির পরিমাণ হ্রাস পাবে।’

এমএইচএম/এনডিএস/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]