জবি শিক্ষার্থীকে মারধর, র‌্যাবের দুঃখ প্রকাশ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৭:৩৯ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) হাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) পাঁচ শিক্ষার্থী মারধরের প্রতিবাদে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। রোববার সকালে শিক্ষার্থীদের পরিবহনকারী বাসগুলো ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের রায়সাহেব বাজার মোড়ে পৌঁছালে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এতে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক ও গুলিস্তান-সদরঘাট রুটে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তীব্র ভোগান্তিতে পড়েন সদরঘাট ও মাওয়াগামী যাত্রীরা।

সকাল সাড়ে ৯টার সময় প্রক্টরের আশ্বাসে ক্যাম্পাসে ফিরে যায় শিক্ষার্থীরা। এরপর প্রশাসনিক ভবনের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন তারা। তাদের দাবি র‌্যাবের হামলার বিচার অতি দ্রুত করতে হবে। সুষ্ঠু বিচার না হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধের হুঁশিয়ারি দেন তারা।

এরপর বিষয়টি মীমাংসার জন্য দুুপুর সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাব-১০ এর একটি প্রতিনিধি দল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের সাথে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করে। সাক্ষাতে গত ১২ সেপ্টেম্বরের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক মো. কাইয়ুমুজ্জামান খান আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেন। র‌্যাব মহা-পরিচালকের নির্দেশে র‌্যাব-১০ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে এবং এতে র‌্যাবের কোনো সদস্যদের বাড়াবাড়ি পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে নিশ্চয়তা প্রদান করেছেন।

এসময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামন, প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল, র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক মো. কাইয়ুমুজ্জামান খান, ডিএমপি লালবাগ জোনের ডিসি মো. মুনতাসিরুল ইসলাম, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর, র‌্যাব ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এনএফ/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]