ইবি ছাত্রলীগ সম্পাদককে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ০৬:৪৯ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি উঠেছে। তার বিরুদ্ধে ৪০ লাখ টাকা দিয়ে নেতা হওয়া ও নিয়োগ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের নেতাকর্মীরা। সোমবার দুপুরে উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করে এ দাবি জানান তারা।

এ সময় তারা শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের সম্প্রতি ফাঁস হওয়া অডিওর কথোপকথনে ড্রাইভার নিয়োগ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত, ৪০ লাখ টাকা দিয়ে সম্পাদক হওয়া এবং মহামান্য হাইকোর্ট অবমাননার বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে বলে উপাচার্যকে জানান। শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে যদি শিক্ষক চাকরিচ্যুত হন তবে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে তাকেও এমন কর্মে বহিষ্কার করতে হবে বলে দাবি করেন বিদ্রোহী গ্রুপের কর্মীরা।

উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করার সময় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শিশির ইসলাম বাবু, তৌকির মাহফুজ মাসুদ, সাবেক ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালন, সাবেক সহ-সম্পাদক ফয়সাল সিদ্দিকি আরাফাতের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের শতাধিক কর্মী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

সম্প্রতি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের কথোপকথনের একটি অডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। অডিওতে স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্রাইভার নিয়োগ বাণিজ্য-সংক্রান্ত কথোপকথন ও ৪০ লাখ টাকা দিয়ে সম্পাদক হওয়ার বিষয়টি ওঠে আসে। এ সংক্রান্ত খবর পত্রিকায় প্রকাশ হলে এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক পদত্যাগের পর শনিবার রাতেই রাকিবকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন বিদ্রোহী গ্রুপের নেতাকর্মীরা। গতকাল রোববারও বিক্ষোভ মিছিল করে তাকে আবারও অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়।

ফেরদাউসুর রহমান সোহাগ/এমবিআর/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]