ইয়াবায় আসক্ত তুষারকে বহিষ্কার করেনি ছাত্রলীগ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১৮ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০১৯

ইয়াবাসক্ত ও বিভিন্ন মাদকদ্রব্য ব্যবসায় জড়িত হাসিবুর রহমান তুষারকে বহিষ্কার করেনি ছাত্রলীগ। গত সপ্তাহে ঢাবির হাজী মুহাম্মদ মুহসীন হলে অভিযান চালিয়ে তাকেসহ দুইজনকে আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছে পিস্তল, ইয়াবা, ফেনসিডিল এবং ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতাদের দাবি, এর আগেও তুষারের বিরুদ্ধে মাদকসেবনের অভিযোগ ছিল। সোহাগ-জাকিরের কমিটির সময় তাকে বহিষ্কার করা হয়।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, গত সপ্তাহের মঙ্গলবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজী মুহম্মদ মুহসিন হলের ১২১ নম্বর রুমে অভিযান চালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি ও পুলিশ। এ সময় ঢাবি ছাত্রলীগের সাবেক ক্রীড়া বিষয়ক উপ-সম্পাদক হাসিবুর রহমান তুষার এবং মহসীন হল ছাত্রলীগের কর্মী আবু বকর আলিফকে আটক করা হয়। এ সময় ওই রুম থেকে ১টি পিস্তল (বুলেট লোডেড), কয়েকশ ইয়াবা, কয়েক বোতল ফেনসিডিল, ২টি সিসি ক্যামেরা, ২টি বঁটি, ১টি হাতুড়ি এবং ২টি লাঠি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে তুষারের ইয়াবা সেবনের একটি ছবি গণমাধ্যমে আসে। তখন ছাত্রলীগ থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। কিন্তু ওই বছরের ২৮ এপ্রিল তৎকালীন ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ এবং সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসেন তার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলে পদ ফিরে পান তুষার।

এর পরে একাধিকবার মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ আসে তার বিরুদ্ধে। পরে গত মঙ্গলবার গ্রেফতার করে তাকে রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

এ ঘটনার পরদিন সংবাদ সম্মেলন করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সেখানে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য দাবি করেন, তুষার আগে থেকেই ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কৃত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে লেখক ভট্টাচার্য বলেন, ‘তাকে তো বহিষ্কার করা হয়েছিল বলে জানতাম। কিন্তু কবে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয় সেটা জানি না। যদি বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয় তবে আমরা সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেব।’

আল-সাদী ভূঁইয়া/এসআর/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com