রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হলেন আরেক আবরার

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাবি
প্রকাশিত: ০৪:৩৭ পিএম, ০৬ নভেম্বর ২০১৯

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের বিজ্ঞান, জীব ও ভূ-বিজ্ঞান, কৃষি ও প্রকৌশল অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন আবরার নামে আরেক শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের ডিন অধ্যাপক সালেহা জেসমিন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তবে আবরারের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারেননি তিনি।

বুধবার বিকেল ৩টার দিকে ‘সি’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করা হয়। ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার চিফ কো-অর্ডিনেটর ড. একরামুল হামিদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে।

এর আগে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ২০১৯-২০ সেশনের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেন কাজী আবরার মাহমুদ। আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজের এই শিক্ষার্থী স্থাপত্য অনুষদে মেধা তালিকায় (সম্মিলিত) শীর্ষ স্থান অধিকার করেছেন।

গত ৬ অক্টোবর বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষাপটে ক্ষোভ ও শোকের পরিস্থিতির মধ্যেই ১৪ অক্টোবর বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের বিজ্ঞান, জীব ও ভূ-বিজ্ঞান, কৃষি ও প্রকৌশল অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হন আবরার নামে আরেক শিক্ষার্থী।

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশিত শর্তানুযায়ী এমসিকিউ পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে আসন সংখ্যার ১০ গুণ পরীক্ষার্থীর লিখিত পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়ন করা হয়েছে।

উত্তীর্ণ ভর্তিচ্ছুদের আগামী ১৫ থেকে ২০ নভেম্বরের মধ্যে অনলাইনে ভর্তির বিভাগের পছন্দক্রম পূরণ করতে বলা হয়েছে। কোনো ভর্তিচ্ছু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পছন্দক্রম পূরণ করতে না পারলে ‘সি’ ইউনিটে তার প্রার্থিতা বাতিল বলে গণ্য হবে এবং ‘সি’ ইউনিটের কোনো বিভাগে ভর্তির আর কোনো সুযোগ থাকবে না।

এছাড়া পছন্দক্রম পূরণ করার সময় কোনো ভর্তিচ্ছু কোনো বিভাগে ভর্তি হতে আদৌ আগ্রহী না হলে সেটি পছন্দক্রম থেকে বাদ রাখতে পারবে। তবে পছন্দক্রম প্রদানের পর সেই অনুযায়ী কোনো বিভাগে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হলে সেই বিভাগে অবশ্যই ভর্তি হতে হবে, নতুবা ‘সি’ ইউনিটে তার প্রার্থিতা বাতিল বলে গণ্য হবে এবং পরবর্তীতে ‘সি’ ইউনিটের কোনো বিভাগে ভর্তির আর সুযোগ থাকবে না।

পরবর্তীতে আসন শূন্য হওয়া সাপেক্ষে শুধুমাত্র ভর্তি হওয়া ছাত্র-ছাত্রীদের বিভাগ পছন্দের ক্রম অনুসারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিভাগ পরিবর্তন করা হবে। এজন্য প্রার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসতে হবে না, নোটিশে জানতে পারবে।

পছন্দক্রম পূরণকারী ভর্তিচ্ছুদের মধ্যে মেধাক্রম অনুসারে প্রথম নির্বাচন তালিকা ৩ ডিসেম্বর বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। প্রথম নির্বাচিত তালিকায় নির্বাচিতদের ২৫ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বরের মধ্যে ভর্তি হতে হবে।

এ ছাড়া শূন্য আসনের জন্য অপেক্ষমান তালিকা থেকে মেধা ও পছন্দক্রম অনুসারে ভর্তির জন্য নির্বাচন করা হবে, যার সম্ভাব্য সময়সূচি যথাসময়ে প্রকাশ করা হবে।

এদিকে, যেসব উত্তীর্ণ ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার সময় শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হতে আগ্রহ প্রকাশ করে বৃত্ত পূরণ করেছে তাদের ব্যবহারিক পরীক্ষা সংক্রান্ত নোটিশ আগামী ১১ নভেম্বর বিকেলে প্রকাশ করা হবে। ব্যবহারিক পরীক্ষায় অনুপস্থিত পরীক্ষার্থী উক্ত বিভাগে ভর্তির কোনো সুযোগ পাবে না, তবে অন্যান্য বিভাগগুলোতে ভর্তির সুযোগ বহাল থাকবে।

ভর্তি সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যার জন্য অফিস চলাকালীন সময়ে (সকাল ৯টা-বিকেল ৫টা) ইউনিট কার্যালয়ে যোগাযোগ করা যেতে পারে (ফোন: ০৭২১-৭১১২৫৫, ০১৯১৪-৩২৭১৪২)। অনলাইন পছন্দক্রম ফর্ম পূরণ সংক্রান্ত কারিগরি সমস্যার জন্য হেল্পলাইন ০১৭০৩-৮৯৯৯৭৩।

প্রসঙ্গত, ৬ অক্টোবর মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন। এ ঘটনায় নিহত আবরারের বাবা মো. বরকত উল্লাহ ১৯ জনসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে চকবাজার থানায় মামলা করেন।

সালমান শাকিল/এএম/এমকেএইচ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com