স্কাউটে রাষ্ট্রপতি অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন ঢাকা কলেজের আল মামুন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা কলেজ
প্রকাশিত: ০৪:৩২ এএম, ০৭ নভেম্বর ২০১৯

রোভার স্কাউটদের জন্য বাংলাদেশ স্কাউটসের সর্বোচ্চ অ্যাওয়ার্ড প্রেসিডেন্টস রোভার ‘স্কাউট অ্যাওয়ার্ড’ (পিআরএস) এর জন্য মনোনীত হয়েছেন ঢাকা কলেজের বাংলা বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্যায়ের শিক্ষার্থী রোভার স্কাউট আল মামুন। তিনি ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপের সেবা স্তরের রোভার।

স্কাউটস সদর দফতর থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশ স্কাউটসের উপপরিচালক (প্রোগ্রাম) এ এইচ এম শামসুল আজাদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী আল মামুনের প্রেসিডেন্ট রোভার স্কাউট (পিআরএস) অর্জনের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। এ বছর যাচাই-বাছাই শেষে সারাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মোট ১২ জনকে এই অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত করা হয়েছে।

প্রেসিডেন্টস রোভার স্কাউট অ্যাওয়ার্ড অর্জনের জন্য মনোনীত হওয়ায় উৎফুল্ল মামুন। তিনি মনে করেন, দেশের শিশু-কিশোর ও যুবকদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রম হিসেবে স্কাউটিংয়ের তুলনা নেই। এর বাস্তবমুখী ধারাবাহিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ছেলেমেয়েরা ছোটবেলা থেকেই সঠিক দিকনির্দেশনার ফলে ব্যক্তি ও সমাজজীবনে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার সুযোগ পেয়ে থাকে। নিরক্ষর ও মাদকমুক্ত সমাজ, সুন্দর পরিবেশ তৈরিতে স্কাউটরা সমাজে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।

ঢাকা কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক সনজিদা আক্তার বলেন, আল মামুন আমার বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী। তার এই অর্জন বাংলা বিভাগের সুনাম বৃদ্ধি করেছে। তাকে নিয়ে আমরা গর্বিত। সেই সাথে মামুনের জন্য অনেক শুভকামনা এবং সুন্দর ভবিষ্যৎ কামনা করছি।

ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপের সম্পাদক অধ্যাপক শামিম আরা বেগম বলেন, আল মামুনের এই অর্জনে আমরা খুব গর্ববোধ করছি। আশা করছি সামনের দিনগুলোতে ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপের অর্জনের তালিকা আরও দীর্ঘ হবে।

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, ঢাকা কলেজ রোভার স্কাউট গ্রুপ প্রতিষ্ঠানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। আমি এদের নিয়ে খুবই গর্ববোধ করি। মামুন প্রেসিডেন্ট রোভার স্কাউট পদক অর্জনের মাধ্যমে ঢাকা কলেজের সুনাম সুখ্যাতি বৃদ্ধি করেছে। আমরা সবসময়ই সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিকট এই প্রত্যাশাটুকুই করি যেন তাদের কাজ কর্মে ঢাকা কলেজের মানমর্যাদা বৃদ্ধি পায়।

উল্লেখ্য, স্কাউট একটি আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবামূলক প্রতিষ্ঠান। বিশ্বের প্রায় সব দেশেই স্কাউট আন্দোলন চালু আছে। বাংলাদেশে স্কাউটের সংখ্যা প্রায় ১৭ লাখ। দেশের প্রায় সব স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়েই এর কার্যক্রম চলছে। সম্প্রতি দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে স্কাউটিংয়ের আওতায় নিয়ে আসার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

বিএ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com