ইউআইইউতে ৫ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক স্নায়ু বিজ্ঞান কর্মশালা

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩৮ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯

ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে (ইউআইইউ) শুরু হয়েছে দ্বিতীয় আইবিআরও-এপিআরসি বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েট স্কুল অফ নিউরোসায়েন্স; ফান্ডামেন্টাল অফ নিউরোসায়েন্স, নিউরাল ডিজঅর্ডারস এবং নিউরাল ইঞ্জিনিয়ারিং কর্মশালা।

ইউআইইউ এইমস ল্যাবের আয়োজনে পাঁচ দিনব্যাপী (৪ থেকে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত) এ কর্মশালা শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তনে শুরু হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন- চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের সাবেক ডিন ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. শুভগত চৌধুরী, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ইউআইইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ড. চৌধুরী মোফিজুর রহমান এবং ইউআইইউর বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রাকিবুল মোস্তফা।

কর্মশালাটি স্পন্সর করছে ইন্টারন্যাশনাল ব্রেইন রিসার্চ ইনস্টিটিউট (আইবিআরও)। পাঁচ দিনব্যাপী এই কর্মশালায় থাকছে ২০টি লেকচার, লাইভ ডেমো আর একটি মিনি কনফারেন্স। কর্মশালাটি বাংলাদেশ ও এশিয়ার নিউরোসায়েন্স বা স্নায়ু বিজ্ঞান সংক্রান্ত রোগের নিরাময় ও গবেষণায় যুক্ত সবার জন্য এক মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- ইউআইইউর এইমস ল্যাবের পরিচালক অধ্যাপক ড. খন্দকার আব্দুল্লাহ আল মামুন। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ইউআইইউর বোর্ড অফ ট্রাস্টিজের ভাইস চেয়ারম্যান ও ইউনাইটেড হাসপাতালের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ফরিদুর রহমান খান।

কর্মশালায় বাংলাদেশের নিউরোসায়েন্সের অগ্রগতির শীর্ষক পেপার উপস্থাপন করেন ইউনাইটেড হাসপাতালের নিউরো সেন্টারের পরিচালক ডা. সৈয়দ সাইদ আহমেদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই কর্মশালা নিউরোসায়েন্স চিকিৎসা এবং গবেষণার পথ উন্মোচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

পাঁচ দিনব্যাপী কর্মশালার ক্লিনিক্যাল ডেমো অনুষ্ঠিত হবে ৬ ডিসেম্বর এবং সিম্পোজিয়ামের মধ্য দিয়ে কর্মশালার সমাপনী অধিবেশন হবে ৮ ডিসেম্বর। মোট সাতটি দেশের ১০০ জনের অধিক আবেদনকারীর মধ্য থেকে নির্বাচিত ৩০ জন অংশগ্রহণকারীর ভ্রমণ, অবস্থান ও আনুষঙ্গিক ব্যয় নির্বাহ করবে আইবিআরও। আর প্রশিক্ষক হিসেবে রয়েছেন পাঁচটি দেশের ১১ জন বিশেষজ্ঞ।

এএম/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]