ছাত্রলীগের হামলায় উত্তাল বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক
ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ববি
প্রকাশিত: ১২:৪৬ এএম, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯

ছাত্রলীগের হামলায় আবারও উত্তাল বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। রোববার রাতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের ‘সিফাত- রুমান’ ও ‘ইমন-জিসান’ দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের জের ধরে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠে আন্তঃবিভাগীয় ভলিবল প্রস্তুতি নেওয়ার সময় শিক্ষকদের সামনে থেকে তুলে নিয়ে শহীদ মিনারের পেছনে ইমন-জিসান গ্রুপের ২ ছাত্রলীগ কর্মীকে লাঠি দিয়ে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত দুই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

হামলায় আহত দুই শিক্ষার্থী হলেন- বাংলা বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের রাকিবুল ইসলাম রিয়াদ ও আসাদুজ্জামান এ্যনি। এ ঘটনায় ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিভাগীয় প্রধানের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে ওই দুই শিক্ষার্থী।

রাকিবুল ইসলাম রিয়াদ জানান, ভূতত্ত্ব ও খণিবিদ্যা বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী আল সামাদ শান্ত, আরাবি ও ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ফিনান্স অ্যান্ড র‌্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থী পিয়াস ও আরও অজ্ঞাত ৫-৬ জন শিক্ষার্থী শিক্ষকদের সামনে আমার উপর অতর্কিত আক্রমণ করে এবং আমাকে গুরুতরভাবে আহত করে। তারা সবাই ‘সিফাত- রুমান’ গ্রুপের ক্যাডার।

অভিযুক্ত ‘সিফাত- রুমান’ গ্রুপের আল সামাদ শান্ত বলেন, গতকাল বিকেলে বন্ধু সজলকে একা পেয়ে মারধর করেছে তারা। রাকিবুল ইসলাম রিয়াদকে শহীদ মিনারে বসে কথা বলা মাত্রই এ্যনি এসে আমাদের মারা শুরু করলে আমরা প্রতিহত করি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক সঞ্জয় সরকার বলেন, খেলার মাঠে চিৎকারের শব্দ শুনে পাশে গিয়ে দেখি রাকিবুল ইসলাম রিয়াদকে দু’জন ধরে মারছে। আসাদুজ্জামান এ্যনিকে আর একজন বাঁশ দিয়ে পেটাচ্ছে। আন্তঃবিভাগ টুর্নামেন্ট উদ্বোধনের দিন একজন খেলোয়াড়কে মাঠ থেকে তুলে নিয়ে মারধর করে বিশ্ববিদ্যালয় অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করা হয়েছে। এটা আমাদের জন্য অশনি সংকেত। সুস্থ রাজনীতি চর্চার সাথে এটা যায় না।

এদিকে ঘটনার পর বিকেল ৪টায় আরও এক শিক্ষার্থীকে মারার জন্য লাঠি নিয়ে ক্যাম্পাসে মহড়া দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ‘সিফাত- রুমান’ গ্রুপের বিরুদ্ধে। নিরাপত্তা সংকটে ক্যাম্পাস থেকে বের হতে না পেরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কাছে নিরাপত্তার জন্য লিখিত আবেদন করেন ২০১৫-১৬ সেশনের একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন বিভাগের শিক্ষার্থী সরদার আশরাফুল ইসলাম দিপ।

আশরাফুল ইসলাম দিপ জানান, আমি ‘সিফাত- রুমান’ গ্রুপের ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে আমি হল ছেড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে অবস্থান করছি এখন। যে কোনো সময় আমার উপর হামলা হতে পারে।

শফিকুল ইসলাম/এমআরএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]