কম্পিউটার চুরি : তদন্ত প্রতিবেদন জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০০ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার থেকে কম্পিউটার চুরির প্রকৃত চোরদের শনাক্ত এবং তদন্তের প্রতিবেদন জনসম্মুখে প্রকাশের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। রোববার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বশেমুরবিপ্রবিতে ঘটে যাওয়া কম্পিউটার চুরির ঘটনার বিষয়ে বিভিন্ন অসঙ্গতির কথা তুলে ধরেন। শিক্ষার্থীরা বলেন, ঈদুল আজহার ছুটিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে যে ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটেছিল সে বিষয়ে এখনও পূর্ণাঙ্গ কোনো সমাধান হয়নি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে গঠিত তদন্ত কমিটি গত ৬ সেপ্টেম্বর তদন্ত প্রতিবেদন রেজিস্ট্রার বরাবর জমা দিলেও সেটা এখনও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. নূরউদ্দিন আহমেদ বলেন, কম্পিউটার চুরির ঘটনা সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি যথাসময়ে রেজিস্ট্রার অফিসে জমা হয়েছে। পরে বিষয়টা শৃঙ্খলা বোর্ডে উঠবে। এ বোর্ডের চেয়ারম্যান ভাইস চ্যান্সেলর। উনি যখন প্রতিবেদনটি চাইবেন তখন আমি দেব।

তিনি আরও বলেন, শৃঙ্খলা কমিটি বিষয়টি সম্পর্কে অবগত। শৃঙ্খলা কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন চাইলে রেজিস্ট্রার অফিস থেকে তদন্ত প্রতিবেদনটি হস্তান্তর করা হবে।

এদিকে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির ৪৯টি কম্পিউটার চুরির ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান না হতেই গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগ থেকে দুটি কম্পিউটার ও ওয়াইফাই রাউটার চুরির ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় শিক্ষার্থীরা বিস্ময় প্রকাশ করেন এবং দ্রুত কম্পিউটার চুরির ঘটনাগুলোকে আমলে নিয়ে সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, বশেমুরবিপ্রবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে চুরি হওয়া ৪৯ কম্পিউটারের মধ্যে ৩৪টি কম্পিউটার উদ্ধার করা হয়েছে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীসহ সাতজনকে আটক করা হয়েছে।

এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]