সংবাদ প্রকাশের পর পড়ে থাকা সোয়া কোটি টাকার বেড সংরক্ষণের উদ্যোগ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:২১ পিএম, ০১ অক্টোবর ২০২০

গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর খোলা আকাশের নিচে পড়ে থেকে ঝোপঝাড়ে পরিণত হওয়া প্রায় সোয়া কোটি টাকার হোস্টেল বেড সংরক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) প্রশাসন।

প্রায় এক বছর পর খোলা আকাশের নিচে ফেলে রাখা স্টিল নির্মিত এই হোস্টেল বেড সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হয়।

এর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর ‘অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে সোয়া কোটি টাকার বেড’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হয় জাগো নিউজে। এর পরই এসব আসবাবপত্র সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টোর কিপার মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘গত সপ্তাহ থেকেই বেডগুলো সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রায় অর্ধেক বেড সরিয়ে নেয়া হয়েছে।’

jagonews24

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও ওয়ার্কস দফতর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, বশেমুরবিপ্রবির অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে ২০১৭ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত দুবছরে এ সকল বেড ক্রয় করা হয়েছিল। এ সময়ে নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ড ও খুলনা শিপইয়ার্ড থেকে ১১টি ওয়ার্ক অর্ডারের মাধ্যমে মোট ৪ কোটি ৪৮ লাখ ২৭ হাজার ৬২৫ টাকা মূল্যের দুই হাজার ৬৭০টি হোস্টেল বেড ক্রয় করা হয়।

কিন্তু এ সময়ে নবনির্মিত দুটি হলে সর্বমোট আসন সংখ্যা এক হাজার। প্রয়োজনের অতিরিক্ত বেড ক্রয় করাতেই মূলত দীর্ঘদিন ধরে প্রায় ৮০০ বেড খোলা আকাশের নিচে পড়েছিল। পড়ে থাকা এ সকল বেডের প্রতিটির গড় মূল্য ছিল প্রায় ১৬ হাজার ৭৮৯ টাকা।

বশেমুরবিপ্রবির স্টোর কিপার মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ বলেন, ‘স্টোরের জায়গা সংকট থাকায় এতদিন বেডগুলো খোলা আকাশের নিচে পড়েছিল। সম্প্রতি আমরা অস্থায়ীভাবে নির্মিত একটি শেডের মালামাল ক্যাফেটেরিয়ার ফাঁকা অংশে স্থানান্তর করেছি এবং ওই শেডে বেডগুলো রাখার ব্যবস্থা করেছি।

সুকান্ত সরকার/এফআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]