সাবেক হয়েও বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীদের তালিকায় রাবির অধ্যাপক

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাবি
প্রকাশিত: ০৪:৫৫ এএম, ১৮ নভেম্বর ২০২০

শিক্ষকতা থেকে অবসর নিলেও বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীদের মঝে ঠাঁই পেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সাবেক এক অধ্যাপক। বিশ্ববিদ্যালয়টির অ্যাপ্লাইড কেমিস্ট্রি অ্যান্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত এ অধ্যাপকের নাম ড. রঞ্জিত কুমার বিশ্বাস।

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-ভিত্তিক গবেষকদের প্রকাশিত একটি জার্নালে বিশ্বের শীর্ষ দুই শতাংশ বিজ্ঞানীদের তালিকা প্রকাশ হয়েছে।

স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি ব্যবহার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক জন আইওনিডিস, কেভিন ডব্লিউ বয়াক এবং নেদারল্যান্ডস-ভিত্তিক জেরোইন বাস এক গবেষণায় বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখার এক লাখ ৫৯ হাজার ৬৮৩ জন বিজ্ঞানীর এই তালিকা প্রকাশ করেন। প্রত্যেক বিজ্ঞানীকে তাদের নিজস্ব গবেষণা কাজের উদ্ধৃতি সংখ্যার ভিত্তিতে এ তালিকায় স্থান দেওয়া হয়।

ড. বিশ্বাস তার গবেষণা ক্ষেত্র মেটালর্জি এবং মাইনিং এর একজন শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞানী। তালিকায় তিনি তার গবেষণা শাখায় ২৮৪তম স্থানে রয়েছেন। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন গবেষণা জার্নালে তার প্রকাশিত মোট গবেষণা নিবন্ধের সংখ্যা ১২০টি। এর মাঝে ৮০টি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে বিভিন্ন বিদেশি গবেষণা জার্নালে।

তার গবেষণা থেকে উদ্ধৃত করা হয়েছে ১,৩৫২ বারেরও বেশি। বিজ্ঞান ও গবেষেণাক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৩ সালে ইউজিসি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন ড. বিশ্বাস। এছাড়াও ২০১৪ সালে বাংলাদেশ একাডেমি অব সায়েন্স (বাস) অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হন তিনি।

ড. বিশ্বাস রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টরেট সম্পন্ন করে যুক্তরাজ্যের ব্র্যাডফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কমনওয়েলথ একাডেমিক স্টাফ বৃত্তি নিয়ে পোস্ট-ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন। টাওয়াস থার্ড ওয়ার্ল্ড সায়েন্স স্কলারশিপের অধীনে ইতালির পেরোগীয়া বিশ্ববিদ্যালয়েও পোস্ট-ডক ফেলো ছিলেন তিনি।

এছাড়াও তিনি জাপানের টোকিও বিশ্ববিদ্যালয় এবং ভারতের মেটালর্জি রিসার্চ ল্যাবরেটরিতে পোস্ট-ডক ফেলো ছিলেন। ড. বিশ্বাস ১৯৮০ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তার অধীনে পিএইচডি করেছেন ১১ জন গবেষক। ২০১৯ সালের জুনে তিনি শিক্ষকতা থেকে অবসর গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, বিশ্বসেরা গবেষকদের এ তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন দেশের ১৭টি প্রতিষ্ঠানের ২৬ জন শিক্ষক ও গবেষক।

সালমান শাকিল/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]