ইবির ৩৭ শিক্ষার্থী পাচ্ছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ফেলোশিপ

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৩:২৮ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০২১

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের গবেষণা সহযোগিতা প্রকল্প ‘জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ফেলোশিপ’ পাচ্ছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) বিভিন্ন বিভাগের ৩৭ জন শিক্ষার্থী।

রোববার (১০ জানুয়ারি) বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব খান এম রেজা-উন-নবীর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ভৌতবিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান ও চিকিৎসাবিজ্ঞান, খাদ্য ও কৃষি বিজ্ঞান- এই তিন ক্যাটাগরিতে ফেলোশিপ পাচ্ছেন মোট তিন হাজার ২৪৯ জন শিক্ষার্থী।

উল্লেখিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভৌতবিজ্ঞান ক্যাটাগরিতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮ জন এবং জীববিজ্ঞান ও চিকিৎসাবিজ্ঞান ক্যাটাগরিতে ১৯ শিক্ষার্থীসহ মোট ৩৭ জন ফেলোশিপের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন।

এর মধ্যে জীববিজ্ঞান ও চিকিৎসাবিজ্ঞান ক্যাটাগরিতে বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের জান্নাতুল ফেরদৌস, ওয়ালিদ হাসান, জিনিয়া আফরিন, শারমিন আক্তার শাম্মি, মুনতাহা বিনতে মুখলেস, সায়ান আলী, রাকিবুল ইসলাম, রেহেনা আক্তার, বিথি খাতুন, অংকন খান, আব্দুস সবুর, জান্নাতুল ফেরদৌস পারভেজ, মনিরা আক্তার, সানজিদা খাতুন, ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের তারেক আজিজ, রাকিবুল ইসলাম, মাইনুর রেজা, বিল্লাল হোসেন, তায়েবা তাসনিমা ফেলোশিপ পেয়েছেন।

ভৌত বিজ্ঞান ক্যাটাগরিতে ফেলোশিপ পেয়েছেন ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সিনথিয়া খান, সোহানা পারভীন, তাথিয়া ইয়াসমিন, কাজী সুরাইয়া খান, নুসরত জাহান, আবু সাঈদ, শামীম ইসলাম, আফরোজা আক্তার, আদনান বিন আলীম, হারুন অর রশীদ, ইভানা ইসলাম।

এছাড়া ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সেলিম রেজা জীবন, ইসমাত জাহান, আলী হাসান, সোনিয়া খান, সাব্বির আহমেদ, পরিসংখ্যান বিভাগের মামুনুর রশীদ ও আইসিটি বিভাগের রুহুল আমিন এ ফেলোশিপ পাচ্ছেন।

শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রতি এমএস শিক্ষার্থী ৫৪ হাজার টাকা, এমফিল গবেষক ৬৮ হাজার ৪০০ টাকা এবং পিএইচডি গবেষক তিন লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা পাবেন।

উল্লেখ্য, ১৯৭৭-১৯৭৮ অর্থবছর থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষণা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ও গবেষণারত এমএস, এমফিল, পিএইচডি এবং পিএইচডি পর্যায়ের শিক্ষার্থী ও গবেষকদের এই অনুদান দেয়া হয়।

এসএমএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]