মাতৃভাষা দিবসে মাস্ক ছাড়া ঢাবি ক্যাম্পাসে প্রবেশ নয়

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:২৫ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২১

একুশে ফেব্রুয়ারি জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আগত সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরতে হবে। একই সঙ্গে মাস্ক ছাড়া কেউ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) প্রবেশ করতে পারবে না।

অমর একুশে পালন উপলক্ষে রোববার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দিবসটি সুষ্ঠুভাবে উদযাপনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আগত সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান করতে হবে। মাস্ক ছাড়া কেউ ঢাবি ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে পারবে না। এছাড়া সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে প্রতিটি সংগঠন/প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ পাঁচজন প্রতিনিধি ও ব্যক্তিপর্যায়ে একসঙ্গে সর্বোচ্চ দুজন শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করতে পারবেন।

এছাড়া অমর একুশে উদযাপনের জন্য আইন অনুষদের ডিন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. রহমত উল্লাহকে সমন্বয়কারী, সমিতির সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. সাবিতা রিজওয়ানা রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়াকে যুগ্ম-সমন্বয়কারী এবং প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানীকে সদস্য-সচিব করে অমর একুশে উদযাপন সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উপাচার্যের উদ্ধৃতি উল্লেখ করে বলা হয়, এবছর পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে জনসমাগম এড়িয়ে চলার বিষয়ে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখার স্বার্থে অমর একুশে উদযাপন উপলক্ষে গৃহীত সব কর্মসূচি সুশৃঙ্খল, সুষ্ঠু ও সফলভাবে বাস্তবায়নের জন্য উপাচার্য সংশ্লিষ্ট সবার সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করছি।

সভায় কেন্দ্রীয় সমন্বয় কমিটি ছাড়াও উপকমিটি গঠন করা হয় বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে ঢাবি কর্তৃপক্ষের বিজ্ঞপ্তিতে জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ‘পালন’ করার কথা উল্লেখ না করে ‘উদযাপন’ লেখায় সাংবাদিক ও সচেতন মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

এসজে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]