সাত কলেজ : পরীক্ষা স্থগিত হলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি শিক্ষার্থীদের

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক
ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ঢাকা কলেজ
প্রকাশিত: ০৩:৫৬ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজের চলমান পরীক্ষা স্থগিত করা হলে কঠোর আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। গতকাল চলমান সব পরীক্ষা বন্ধে শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা আসার পর সামনে আসে সাত কলেজের চলমান পরীক্ষার বিষয়টি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক গ্রুপে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন। সেই সাথে চলমান এসব পরীক্ষা স্থগিত হলে আন্দেলনে নামবেন বলে অনেক শিক্ষার্থী পোস্ট দিয়েছেন।

আরিফুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী লিখেছেন, ‘আমাদের পরীক্ষা স্থগিত করলে কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। সবাই প্রস্তুত থাকেন।’ ইয়াসিন শেখ লিখেছেন, ‘৭ কলেজের ওপর আর কোনো অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া হলে শিক্ষার্থীরা সেটি কোনোভাবেই মেনে নেবে না।’

যাকারিয়া লাবন লিখেছেন, ‘এখন থেকে সাত কলেজের ব্যাপারে যেকোনো হঠকারী সিদ্ধান্ত রুখে দেয়া হবে যৌক্তিক আন্দোলনের মাধ্যমে। সকলেই প্রস্তুত থাকুন বিশেষ করে ১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা। আজগুবি সিদ্ধান্ত আসা মাত্রই মাঠে নামতে হবে।’

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী তৌকির আহমেদ বলেন, ‘আমাদের মাত্র একটা পরীক্ষা বাকি আছে। এখন যদি পরীক্ষা স্থগিত করা হয় তাহলে দীর্ঘ সেশনজটে পড়ে যাব। আমাদের দাবি অন্তত চলমান পরীক্ষাগুলো যাতে নেয়া হয়।’

শিক্ষার্থীরা বলছেন, এমনিতেই তারা দীর্ঘ সেশনজটে রয়েছেন। চলমান পরীক্ষা স্থগিত হলে ভয়াবহ সেশনজটে পড়বেন তারা। এছাড়া হলে থাকা অনেক শিক্ষার্থীর আবাসন সুবিধা নিশ্চিত না করেই পরীক্ষার আয়োজন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ প্রশাসন। ব্যাধ্য হয়ে এসব শিক্ষার্থীকে নতুন করে বাসাভাড়া করে থেকে পরীক্ষা দিতে হচ্ছে। এখন আবার বাসা ছাড়তে হলে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে ছাড়তে হবে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ সাত কলেজের ওপর বরাবরই অযৌক্তিক সব সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া হয়। এবার তারা আর এসব হঠকারী সিদ্ধান্ত মানবেন না।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যেই দীর্ঘ সেশনজট এড়াতে পরীক্ষার দাবিতে বেশ কয়েকবার আন্দোলনে নামে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাত কলেজর সাথে আলেচনা করে পরীক্ষা শুরুর সিদ্ধান্ত নেয়। এতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ও অনুমতি দেয় বলে জানিয়েছিলেন সাত কলেজের সমন্বক ও ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার।

প্রফেসর আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠক চলছে। বিকেলে সাত কলেজের অধ্যক্ষদের সাথে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বৈঠক হবে। সেখানেই সিদ্ধান্ত জানা যাবে।’

নাহিদ হাসান/বিএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]