মোবাইল বের করার অজুহাতে ছাত্রলীগ কর্মীর মারধর

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৬:৩৭ পিএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরীক্ষার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলনরত এক শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর নাম মুজাহিদ চৌধুরী। তিনি ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াসের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে চলমান পরীক্ষা স্থগিতের আদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে স্মারকলিপি দিতে প্রক্টর অফিসে গেলে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী শাহ মোহাম্মদ শিহাব ইংরেজি বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। অভিযুক্ত মুজাহিদ চৌধুরী সংস্কৃত বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী শাহ মোহাম্মদ শিহাব বলেন, ‘একটা কল আসায় মোবাইল বের করেছিলাম। তখন মোবাইল বের করেছি কেন জানতে চেয়ে হুট করেই একজন আমার ওপর চড়াও হন। পরে ছাত্রলীগের সভাপতিসহ তিনি বলেছেন, অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে এটা ঘটে গেছে। প্রক্টর স্যার বলেছেন, বিষয়টা দেখবেন।’

তবে ছাত্রলীগকর্মী মুজাহিদ চৌধুরী মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি ওই ছেলেটার নামও জানি না এখনো। কোনো ভুল বোঝাবুঝি হয়ে থাকতে পারে। আমি তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। আশা করি, সুষ্ঠু সমাধান হবে। আমি অন্য একটা কাজে প্রক্টর অফিসে গেছিলাম।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বলেন, ‘এটা নিয়ে যেন আর বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় সেদিকে আমরা লক্ষ্য রেখেছি। তবে, ছাত্রলীগের সঙ্গে এটার সম্পৃক্ততা নেই। যেহেতু আমাদের পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই, সেহেতু এখানে ছাত্রলীগের নাম বিক্রি করার সুযোগ নাই।’

প্রক্টর রবিউল হাসান ভূঁইয়া বলেন, ‘সবাই একসঙ্গে প্রক্টর অফিসে ঢুকতে গেলে করোনা পরিস্থিতির কারণে কয়েকজন প্রতিনিধি ছাড়া সবাইকে আমি বাইরে অপেক্ষা করতে বলি। বের হতে গিয়ে সামনে থেকে এরকম কোনো ঘটনা ঘটেছে হয়তো। আমি পরে শুনেছি। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে বলেছি, বিষয়টা জেনে আমি সিদ্ধান্ত নেব।’

এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]