করোনা উপসর্গ নিয়ে চবির দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ছাত্রীর মৃত্যু

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৫:২০ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০২১

‘করোনা উপসর্গ’ নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সমাজতত্ত্ব বিভাগের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১০ এপ্রিল) ভোর ৫টায় গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার পূর্ব কান্দাইলে মৃত্যু হয় ওই শিক্ষার্থীর।

শারমিন নামের ওই শিক্ষার্থী কয়েকদিন ধরে জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও মাথাব্যথায় ভুগছিলেন। এছাড়া খাদ্য গ্রহণেও সমস্যা দেখা দিয়েছিল তার। পরিবারের ধারণা, স্ট্রোকজনিত কারণে মারা গেছেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওই শিক্ষার্থীর বড় ভাই ফাইজুল হক বলেন, অবস্থার অবনতি হলে সকাল ৮টার দিকে হাসপাতালে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এর আগেই সে মৃত্যুবরণ করে।

শারীরিকভাবে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শারমিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ব বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

শারমিনের বাবা ওসমান গণি মারা গেছেন আগেই। মা, দুই ভাই ও তিন বোনের টানাটানির সংসারে তিনজনই প্রতিবন্ধী। পরিবারের একমাত্র কর্মক্ষম ছোট ভাই আরিফুল লিবিয়াতে করোনার কারণে আয়বিহীন অবস্থায় দিনযাপন করছেন দীর্ঘদিন। এ অবস্থায় চরম বিপাকে পড়েছে পরিবারটি।

এদিকে তার অকাল মৃত্যুতে সহপাঠীদের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

শারমিনের সহপাঠী আশরাফুল ইসলাম আরমান বলেন, শারমিন শারিরীকভাবে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ছিল। আর্থিকভাবেও অসচ্ছল ছিল। তবুও সে সব প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে পড়ালেখা নিয়মিতভাবে চালিয়ে যাচ্ছিল। শ্রেণি কার্যক্রমেও নিয়মিত ছিল। তার অকাল প্রয়াণে আমরা গভীর শোকাহত।

সমাজতত্ত্ব বিভাগের সভাপতি পারভীন সুলতানা বলেন, সংবাদটি শুনে আমি খুব মর্মাহত হয়েছি। আমাদের একজন শিক্ষার্থীর মৃত্যু খুবই দুঃখজনক। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হিসেবে সে আমার খুব ঘনিষ্ঠ ছিল। আমি ব্যক্তিগতভাবে তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করব। বিভাগের সকল শিক্ষকদের সাথে পরামর্শ করে তার অসহায় পরিবারের জন্য কিছু করতে পারব বলে আশা রাখছি।

রোকনুজ্জামান/এফএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]