লকডাউনে পথশিশু ও ভাসমান মানুষকে খাবার দিচ্ছে শ্রমজীবী ক্যান্টিন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:৫৭ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০২১

করোনায় ‘শ্রমজীবী ক্যান্টিন’ নামে উদ্যোগের মাধ্যমে মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) সংসদ। সংগঠনের নেতাকর্মীরা শ্রমজীবী ক্যান্টিনের খাবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, বাহাদুর শাহ পার্ক ও সদরঘাট এলাকার শ্রমজীবী, পথশিশু ও ভাসমান মানুষদের মধ্যে বিতরণ করছেন। এই কর্মসূচিকে ‘দাতব্য নয় সংহতি, শ্রমজীবী ক্যান্টিন, জীবন জয়ী হবে’ এই হ্যাশট্যাগ দিয়ে ফেসবুকে ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত ১৩ এপ্রিল থেকে অসহায় মানুষদের মাঝে খাবার বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়। শ্রমজীবী ক্যান্টিন থেকে প্রতিদিন ৭০ জনকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে বলে সংগঠন সূত্রে জানা যায়।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জবি সংসদের সভাপতি কেএম মুত্তাকী বলেন, ‘আমরা আমাদের উদ্যোগকে দাতব্য মনে করে ছাত্রদের সাথে শ্রমিকদের এই সংহতি উদ্যোগ। তবে এই দায়িত্বটা মূলত রাষ্ট্রের। আমরা দাবি জানাব, রাষ্ট্রীয়ভাবে যেনো লকডাউনে শ্রমজীবী, পথশিশুদের খাদ্য ও স্বাস্থ্য সহায়তা দেয়া হয়। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ছাত্র ইউনিয়নের শ্রমজীবী ক্যান্টিন থেকে আমরা মূলত আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশের মানুজন যাদের সাথে আমাদের চলতে ফিরতে দেখা হয় তাদের সাথে আমাদের সামর্থ্য ভাগাভাগি করার চেষ্টা করছি।’

jagonews24

ছাত্র ইউনিয়ন জবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক খায়রুল হাসান জাহিন বলেন, ‘আমরা মাস্ক বিক্রির টাকার পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক শুভানুধ্যায়ীদের সহযোগিতায় এই ক্যান্টিন চালাচ্ছি। আমরা কতদিন চালাব সে ব্যাপারে নিশ্চিত নই। পুরোটাই নির্ভর করছে আমাদের শক্তি, সামর্থ্য আর সহযোগিতার ওপর। তবে লকডাউন যতদিন চলছে, আমরা ততদিন কিছু না কিছু করার চেষ্টা করব।’

শ্রমজীবী ক্যান্টিনে সহযোগিতা জন্য বিকাশ- ০১৯৭১ ১০৪ ০৭৭, নগদ- ০১৯৭১ ১০৪ ০৭৭ ও রকেট- ০১৬৭২ ১১১ ৯৯৬-৬ নম্বরে সহায়তারও আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি।

এসএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]