‘সচিবকে বশেফমুবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ নিয়োগ ষড়যন্ত্রের অংশ’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৫:০৭ পিএম, ০৮ মে ২০২১

অবসরোত্তর ছুটিতে (পিআরএল) থাকা পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল মান্নানকে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) কোষাধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়াকে ষড়যন্ত্রের অংশ উল্লেখ করে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) শিক্ষক সমিতি।

একই সঙ্গে অবিলম্বে এই নিয়োগের আদেশ প্রত্যাহার করে ওই পদে একজন শিক্ষাবিদকে নিয়োগ প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

শনিবার (৮ মে) শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলশী কুমার দাস ও সাধারণ সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক মো. মহিবুল আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, গত ৫ মে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে বশেফমুবিপ্রবিতে কোষাধ্যক্ষ পদে একজন সাবেক অতিরিক্ত সচিবকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য কোষাধ্যক্ষকে উপাচার্যের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করতে হয়। একাডেমিক ব্যক্তি নন, এমন কর্মকর্তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ প্রকৃতপক্ষে একটা ষড়যন্ত্রের অংশ, যা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশকে অস্থিতিশীল করবে বলে আমরা মনে করি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন যুগোপযোগী শিক্ষা ও গবেষণার মানোয়ন্নয়ের লক্ষ্যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন, তখনই একটি কুচক্রী মহল বিতর্কিত এই নিয়োগ প্রদানের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশকে অস্থিতিশীল করে তোলার পাঁয়তারা করছে। এ ধরনের প্রশ্নবিদ্ধ নিয়োগ শিক্ষক সমাজ ও জাতির জন্য হতাশাজনকও বটে।

মোয়াজ্জেম আফরান/আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]