প্রেম নিয়ে দ্বন্দ্বে জাবিতে কিশোর গ্যাংয়ের অস্ত্রের মহড়া

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জাবি
প্রকাশিত: ০৭:৫৪ পিএম, ০৬ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৮:০৪ পিএম, ০৬ জুন ২০২১

প্রেম নিয়ে দ্বন্দ্বে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) দেশীয় অস্ত্রের মহড়া দিয়েছে দুই কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা।

রোববার (৬ জুন) বেলা ১১টায় জাবি স্কুল অ্যান্ড কলেজ এলাকায় এ মহড়া দেয়া তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ‘রাইডারবিডি ০০৭’ গ্যাংয়ের সদস্য রুদ্রের সঙ্গে জাবি স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিছুদিন আগে তাদের সম্পর্ক ছিন্ন হয়। পরে ওই ছাত্রী ইসলামনগর এলাকার কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য রাতুলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়ায়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে রুদ্র কয়েকবার রাতুলকে হুমকি দেয়।

এ ঘটনার জেরে রোববার (৬ জুন) সকালে রাতুল ও রুদ্রের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে রাতুল ও তার গ্যাংয়ের সদস্যরা রুদ্রকে মারধর করে। পরে উভয় গ্যাংয়ের সদস্যরাই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। এ সময় ‘রাইডারবিডি ০০৭’ গ্যাংয়ের সদস্যদের চাপাতিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিতে দেখা যায়। বড় ধরনের সংঘর্ষের আগেই বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখার সদস্যরা গিয়ে তাদের সরিয়ে দেন।

ক্যাম্পাস সংলগ্ন রাঙামাটি এলাকার ‘রাইডারবিডি ০০৭’ নামের গ্যাংটি পরিচালনা করে জাবি স্কুল অ্যান্ড কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী তারিকুল ইসলাম তারেক। অন্যদিকে ইসলামনগর এলাকার গ্যাংটি পরিচালনা করে জাবি স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী হাসান রিমু। রিমুর এ গ্যাংটি ‘রিমু গ্যাং’ নামে পরিচিত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রিমু বলেন, ‘সংঘর্ষের কোনো ঘটনা ঘটেনি। একটা মেয়েকে নিয়ে রুদ্র আর রাতুলের মধ্যে ঝামেলা চলছিল। সেই ঘটনার জেরে আজ তাদের দুজনের মধ্যে মারামারি হয়। পরে আমরা গিয়ে তাদের শান্ত করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করি।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার (নিরাপত্তা) জেফরুল হাসান চৌধুরী সজল বলেন, ‘ওই এলাকায় অনেক কিশোর জড়ো হয়েছিল। আমরা গিয়ে তাদেরকে সরিয়ে দিই।’

জাবি স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল জলিল ভুঞা বলেন, ‘কিশোরদের ঝামেলার বিষয়টি শুনেছিলাম। পরে অন্য শিক্ষকদের খোঁজ নিতে পাঠানো হয়েছিল। তবে শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে দেখতে পায়নি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, ‘এমন কোনো ঘটনা সম্পর্কে আমরা এখনো জানতে পারিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে অবশ্যই প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

ফারুক হোসাইন/এসজে/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]