বর্ষপূর্তিতে বৃক্ষরোপণ ও পথশিশুদের খাওয়ালো ‘ইচ্ছা’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:৪৩ এএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সামাজিক সংগঠন ইন্সপায়ার কেয়ার অ্যান্ড কাল্টিভেট হিউম্যান এইডের (ইচ্ছা) তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি পয়েন্টে বৃক্ষরোপণ ও পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ করে সংগঠনটির সদস্যরা।

অনুষ্ঠানে ইচ্ছার উপদেষ্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলমগীর কবির বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই ইচ্ছা দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করে চলেছে। এছাড়া করোনাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে সংগঠনটি। মুক্তিযোদ্ধা, বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেট, করোনা, ডেঙ্গুসহ নানা বিষয়ে ধারাবাহিকভাবে নানা আয়োজন করে আসছে তারা। এছাড়া সমাজকল্যাণমূলক বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেছে সংগঠনটি। শিক্ষার্থীদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকুক।

jagonews24

ইচ্ছার আরেক উপদেষ্টা ও ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাসিমা হামিদ বলেন, তৃতীয় বর্ষ পূর্তিতে ইচ্ছার সঙ্গে সম্পৃক্ত সব উপদেষ্টা, শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের নিরন্তর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থীকে প্রকৃত মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন মানুষ হয়ে গড়ে ওঠার জন্য নানাবিধ সামাজিক, সাংস্কৃতিক এবং জনকল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়া প্রয়োজন।

ইচ্ছার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইতিহাস বিভাগের ৪৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নুরুজ্জামান শুভ বলেন, বিগত তিন বছরে ধারাবাহিকভাবে আমরা মানুষের জন্য কাজ করে চলেছি। এই পথচলায় যারা আমাদের সহযোগিতা করেছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। সবার বিশ্বাস, ভালোবাসা ও সহযোগিতায় ইচ্ছা আরও এগিয়ে যাবে এটাই প্রত্যাশা।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ইচ্ছার সভাপতি এস এন সোহেল রানা, সাধারণ সম্পাদক স্বপ্নীল সাগর, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান আপেল ছাড়াও ফারহানা মৌ, মোহাম্মদ তারেক, মেহেদী হাসান, রিফাত, ফয়সাল, আল-আমীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ফারুক হোসেন/এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]