প্রধানমন্ত্রীকে সম্মানসূচক ডিগ্রি দেওয়ার অনুরোধ ঢাবি উপাচার্যের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২৬ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মানসূচক ডিগ্রি প্রদানের জন্য একাডেমিক কাউন্সিলকে অনুরোধ জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল প্রাঙ্গণে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অনুরোধ জানান।

বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরুর আগে দেওয়া বক্তব্যে তিনি বলেন, আমরা শুধু একজন প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করছি তা নয়। এই প্রধানমন্ত্রী ভিন্ন ধরনের ও ভিন্ন গুণসম্পন্ন প্রধানমন্ত্রী। তিনি এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে ‘মুকুট মণি’ স্বীকৃতি পেয়েছেন। যেহেতু তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী তাই বিশেষ দায়িত্বের জায়গা থেকেই এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

উপাচার্য আরও বলেন, তিনি উন্নয়নের আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে রোল মডেলে পরিণত হচ্ছেন, কল্যাণমুখী কাজ করছেন, দেশের সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন। যারা গণমানুষের জন্য কাজ করেন তাদের স্বীকৃতি দেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। আমি আশা করবো, বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল এই বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়েই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন এই শিক্ষার্থীকে স্বীকৃতি প্রদানের জন্য সম্মানসূচক ডিগ্রি দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

প্রধানমন্ত্রীকে সম্মানসূচক ডিগ্রি দেওয়ার অনুরোধ ঢাবি উপাচার্যের

ড. আখতারুজ্জামান বলেন, আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশের যে স্বীকৃতি সেটি শেখ হাসিনার জন্যই সম্ভব হয়েছে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন প্রাক্তন শিক্ষার্থী হওয়ায় আমরা গর্বিত। আমরা তার জন্মদিনে রোকেয়া হল প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করছি, রোকেয়া হলকে বেছে নেওয়া হয়েছে কারণ তিনি এ ভবনের শাপলা ভবনে আবাসিক ছিলেন।

বক্তব্য শেষে রোকেয়া হলের ৭ মার্চ ভবনের সামনে একটি স্বর্ণচাঁপা গাছের চারা রোপণ করেন উপাচার্য।

এ সময় প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) এ এস এম মাকসুদ কামাল, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) ড. মুহম্মদ আব্দুস সামাদ, রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ ড. জিনাত হুদা, জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মিহির লাল সাহাসহ শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

আল সাদী ভুইয়া/এমএইচআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]