‘দোস্ত কাল অবশ্যই আসবি, দেড় বছরের আড্ডা জমে আছে’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৪৫ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০২১

‘দোস্ত, আজ চলে যাচ্ছিস যা, কাল কিন্তু অবশ্যই ক্লাসে আসবি। দেড় বছরের বকেয়া আড্ডা জমে আছে। ক্লাস, লাইব্রেরি ওয়ার্ক আর পরীক্ষার ফাঁকে জমবে আড্ডা।' রোববার (১৭ অক্টোবর) দুপুর দেড়টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের সামনে সহপাঠীকে রিকশায় তুলে দিয়ে হাসতে হাসতে এ কথা বলছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। রিকশার হুড তুলতে তুলতে রিকশাযাত্রী শিক্ষার্থী, `আসবো, অবশ্যই আসবো’ বলে ঘাড় ফিরিয়ে সহপাঠীর কথার জবাব দিচ্ছিলেন।

ফারহানা ইয়াসমিন নামের ওই শিক্ষার্থী এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় দেড় বছর পর সহপাঠীর সঙ্গে আজ সামনাসামনি দেখা হলো। মোবাইল ফোনে কথা হলেও এতদিন পর সামনাসামনি দেখা হওয়ার অনুভূতি বলে বোঝাতে পারবো না।

jagonews24

শুধু ফারহানা ইয়াসমিন নন, প্রায় দেড় বছর পর আজ ১৭ অক্টোবর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে উপস্থিতিতে ক্লাস শুরু হওয়ায় হাজার হাজার শিক্ষার্থীর পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে ঢাবি ক্যাম্পাস। দীর্ঘ সময় পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রবেশদ্বারের তালা খুলে দেওয়া হয়। সকাল থেকে হাজার হাজার শিক্ষার্থী কেউ বাসা থেকে কেউ আবাসিক হল থেকে ক্লাসে ছুটে আসেন। সকালে ক্লাসে ব্যস্ত থাকলেও দুপুর ১২টার পর থেকে ডাকসু ভবন, মধুর ক্যান্টিন, আইবিএ হাকিম চত্বর, লাইব্রেরি, কলাভবন এবং টিএসসিসহ ক্যাম্পাসজুড়ে অসংখ্য শিক্ষার্থীর জমজমাট আড্ডা বসে।

দুপুর ১টার দিকে সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, শিক্ষার্থীরা কেউ দল বেঁধে গাছতলায় বসে গ্রুপ ফটো তুলছিলেন, কেউ ক্যাম্পাসের ভাসমান ফাস্টফুডের দোকান থেকে খাবার কিনে খাচ্ছিলেন, আবার কেউবা বই নিয়ে লাইব্রেরিতে ঢুঁ মারছিলেন। ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতাদের মধুর ক্যান্টিনে আড্ডা দিতে দেখা যায়।

jagonews24

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী সাফিন আহমেদ জানান, অনেক দিন পর ক্যাম্পাসে এসে অদ্ভুত ধরনের ভালো লাগা কাজ করছে। তবে কোনো কোনো সহপাঠী করোনায় তাদের খুব কাছের স্বজনকে হারানোর কথা শুনে খারাপও লেগেছে।

করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের পর পরই হল ছেড়ে গ্রামের বাড়ি চলে যান সাফিন। অনেকদিন পর ক্যাম্পাসে সহপাঠীদের সাথে দেখা হওয়াটা ঈদের আনন্দের মতোই মনে হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এমইউ/কেএসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]