১৯ মাস পর শ্রেণিকক্ষে ফিরলেন রাবি শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০১:২০ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

করোনার প্রকোপ ঠেকাতে গত বছরের মার্চে ক্লাস বর্জন করেছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এরপর একে একে বিশ্ববিদ্যালয়টির সবগুলো বিভাগেই সশরীরে উপস্থিত হয়ে ক্লাস বন্ধ হয়েছে।

১৮ মার্চ থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত সশরীরে ক্লাস হয়নি মোট ৫৮১ দিন। পুরো করোনার সময়টাতে শিক্ষার্থীবিহীন শ্রেণিকক্ষগুলো ছিল প্রাণহীন।

তবে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) থেকে সশরীরে ক্লাসে অংশ নিচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। এতে আবারও কোলাহল বেড়েছে। ভাঙতে শুরু করেছে দেড় বছরের অধিক সময়ের নীরবতা।

jagonews24

বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের শিক্ষার্থী মিকাইল হোসেন বলেন, সকালে ট্রেন থেকে নেমেই ক্লাসে চলে এসেছি। অনেকদিন পর বন্ধুদের সঙ্গে দেখা। ক্যাম্পাসে ফিরতে পেরে আনন্দ লাগছে।

এদিকে কিছু বিভাগে ক্লাস শুরু হলেও বিভিন্ন অনুষদের বিভাগগুলোতে পরীক্ষা হওয়ায় ক্লাস শুরু করতে আরও কয়েকদিন লেগে যাবে বলে জানান অনুষদ প্রধানরা।

এ প্রসঙ্গে কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. ফজলুল হক জাগো নিউজকে বলেন, আজকে সকালেও বিভাগগুলোর সভাপতিদের সঙ্গে সভা হয়েছে। তারা জানিয়েছেন প্রায় সব বিভাগগুলোতে সশরীরে পরীক্ষা চলছে। কিছু বিভাগের পরীক্ষা আগামী সপ্তাহের মধ্যে শেষ হবে। তাই ক্লাস শুরু করতে সপ্তাহখানেক সময় লাগবে।

jagonews24

করোনা প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের জন্য কী ধরনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে এমন প্রশ্নে সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ফখরুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, শতভাগ মাস্ক নিশ্চিতের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে প্রবেশ করানো হয়েছে। এছাড়া হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করে ক্লাসরুমে ঢোকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে অনুষদের বিভাগগুলোতে।

এর আগে ১৭ অক্টোবর শিক্ষার্থীদের জন্য সব আবাসিক হল খুলে দেওয়া হয়। ওইদিনই প্রায় এক তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী হলে প্রবেশ করেন।

সালমান শাকিল/এসজে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]