পাকিস্তানি প্রেতাত্মারা সাম্প্রদায়িক হামলা চালাচ্ছে: জবি ভিসি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৩:২৩ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

রংপুরের পীরগঞ্জসহ সারাদেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগ। সোমবার বেলা ২টায় জবির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

জবি ছাত্রলীগের আহ্বায়ক (সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি) আশরাফুল ইসলাম টিটনের সভাপতিত্বে ও সাবেক সহ-সভাপতি জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. ইমদাদুল হক, ট্রেজারার ড. কামালউদ্দিন আহমেদ, প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল, ছাত্রকল্যাণের পরিচালক অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলাম, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. নূরে আলম আব্দুল্লাহ, বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব ছাত্রী হলের প্রভোস্ট ও শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. শামীমা বেগম, জবি নীল দলের সভাপতি ড. জাকারিয়া মিয়া প্রমুখ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন জবি ছাত্রলীগ নেতা ইবরাহীম ফরাজী, সৈয়দ শাকিল, আকতার হোসেন, মো. তোয়েব আলীসহ পদপ্রতাশী নেতারা।

মানববন্ধনে জবি উপাচার্য মো. ইমদাদুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে ঠিক সেই সময় কিছু পাকিস্তানি প্রেতাত্মারা এমন সাম্প্রদায়িক হামলা চালাচ্ছে। দেশে আগেও এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু তার যথাযথ বিচার হয়নি বলে এমন সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধ হচ্ছে না। এবার প্রধানমন্ত্রী বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন। এ ঘটনার এমন বিচার করতে হবে যেন আর কেউ এমন ঘটনা ঘটানোর সাহস না পায়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার ড. কামালউদ্দিন আহমেদ বলেন, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সবসময় ছাত্রলীগের অবস্থান ছিল। এমনকি তৎকালীন বিএনপি জোট ক্ষমতায় থাকাকালীনও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের ভূমিকা ছিল। আমাদের লেখনী, বক্তব্য, সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িকতাকে প্রতিহত করতে হবে।

জবি ছাত্রলীগের আহ্বায়ক আশরাফুল ইসলাম টিটন বলেন, যারা দেশকে আফগানিস্তান ও সিরিয়ার মতো ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায় সেই স্বাধীনতাবিরোধী পাকিস্তানি প্রেতাত্মারা রাজনৈতিকভাবে পরাজিত হয়ে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার করছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর বাংলায় তাদের এই ষড়যন্ত্র সফল হতে দেয়া হবে না। এদেশে ধর্মান্ধতা ও ধর্মহীনতার কোনো স্থান হবে না।

এসএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]