দেশি-বিদেশি জার্নাল সংকটে জাবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ১১:০৮ এএম, ২৬ নভেম্বর ২০২১

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে দেখা মিলছে না দেশি-বিদেশি জার্নালের কোনও কপি। ফলে বছরের পর বছর শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছেন এসব জার্নাল পাঠ থেকে।

সরেজমিন ঘরে দেখা যায়, জার্নাল রাখার শেলফগুলো ফাঁকা পড়ে আছে। সেখানে ২০০৭ সালের পর থেকে দীর্ঘ ১৫ বছরের আন্তর্জাতিক কোনো জার্নাল পাওয়া যায়নি।

জানতে চাইলে গ্রন্থাগারের দায়িত্বে থাকা এক কর্মকর্তা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই বিদেশি জার্নালের কপি আসছে না। শিক্ষার্থীরা জার্নালের খোঁজে আসলেও তাদের খালি হাতে ফিরে যেতে হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক মুহাম্মদ হানিফ আলী বলেন, লাইব্রেরির দায়িত্বে নতুন এসেছি। অতীতের জার্নালের বিষয়ে জানা নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মের মধ্যে থেকে দ্রুততার সঙ্গে এসব বিষয় সমাধানও করা সম্ভব হয় না। এছাড়া বাজেটের সীমাবদ্ধতা থাকার কারণে লাইব্রেরিকে সমৃদ্ধ করাও সম্ভব হচ্ছে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণারত একাধিক শিক্ষার্থী জানান, সবসময় বিদেশি জার্নালগুলোতে নজর রাখতে হয়। হাতের কাছে জার্নাল না থাকায় গবেষণায় রেফারেন্স হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ লাইন ব্যবহার করা সম্ভব হয় না। তাই অনলাইনের ওপর ভরসা করে থাকি। কিন্তু সেখানে অনেক জার্নাল পাওয়া যায় না। আবার অনেক জার্নাল ডলারে পেমেন্ট দিয়ে দেখতে হয়। যা শিক্ষার্থী হিসেবে ব্যয় করা কষ্টকর।

শিক্ষাবিদ ও অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, কী কারণে জার্নাল আসে না এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভালো বলতে পারবে। একসময় বিদেশি জার্নাল নিয়মিত আসতো। কিন্তু লাইব্রেরিকে সমৃদ্ধ করতে হার্ডকপি জার্নাল আনা উচিত। যা সময়ে-অসময়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা কাছে পাবে। এখানে বাজেট সীমাবদ্ধতা থাকা ঠিক না। বাজেটে অগ্রাধিকার থাকা উচিত।

আরএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]