চবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে হলুদ দলের জয়

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:২৪ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২
শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. সেলিনা আখতার ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. সজীব কুমার ঘোষ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন-২০২২ শেষ হয়েছে। এতে আওয়ামী ও বামপন্থী শিক্ষকদের হলুদ দল মনোনীত ১১ প্রার্থীর ৯ জন নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি দুটিতে নির্বাচিত হয়েছেন হলুদ দলেরই বিদ্রোহী প্রার্থীরা। অপরদিকে এবারও নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষক সমর্থিত সাদা দল।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন সহকারী নির্বাচন কমিশনার মনিরুজ্জামান ভূঞা। এর আগে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের মিলনায়তনে ভোটগ্রহণ ও গণনা শেষ হয়।

এবারের নির্বাচনে ১১টি পদের মধ্যে সাতটি পদে প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় হলুদ দলের প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচন হয়েছে চারটি পদে। এ পদগুলোতে হলুদ দলের প্রার্থীদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন হলুদ দলের প্রার্থীরাই।

নির্বাচনে সভাপতি পদে ৩৯১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন হলুদ দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক ড. সেলিনা আখতার। সভাপতি পদের আরেক প্রার্থী হলুদ দলের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ড. মো. হানিফ সিদ্দিকী পেয়েছেন ২৯৬ ভোট।

সহ-সভাপতি পদে ৩৯৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন হলুদ দলের প্রার্থী ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক আবদুল হক। অপর প্রার্থী হলুদ দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সুমন বড়ুয়া পেয়েছেন ২৭৯ ভোট।

কোষাধ্যক্ষ পদে ৩৪১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন হলুদ দলের প্রার্থী চারুকলা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক মোহাং জসিম উদ্দিন। অপরদিকে হলুদ দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সুমন গাঙ্গুলী পেয়েছেন ৩৩১ ভোট।

যুগ্ম-সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন হলুদ দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এসএএম জিয়াউল ইসলাম। এই পদে হলুদ দলের প্রার্থী ছিলেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন আহম্মদ।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলুদ দলের প্রতিনিধিরা হলেন, সাধারণ সম্পাদক পদে মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সজীব কুমার ঘোষ, সদস্য পদে জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক ড. নাজনীন নাহার ইসলাম, বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শারমিন মুস্তারী, সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ শোয়াইব উদ্দিন হায়দার, রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. ফণী ভূষণ বিশ্বাস, পদার্থবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সৈয়দা করিমুন্নেছা, আইন বিভাগের প্রভাষক হোছাইন মোহাম্মদ ইউনুছ সিরাজী।

সহকারী নির্বাচন কমিশনার মনিরুজ্জামান ভূঞা বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক হয়েছে।

রোকনুজ্জামান/এসজে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]