ঢাবি ছাত্রলীগের হল সম্মেলন কাল, যোগ্য নেতৃত্বের প্রত্যাশা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৫৬ পিএম, ২৯ জানুয়ারি ২০২২
মধুর ক্যান্টিনে ঢাবি ছাত্রলীগের সংবাদ সম্মেলন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগের হল শাখাগুলোর বার্ষিক সম্মেলন আগামীকাল রোববার (৩০ জানুয়ারি)। প্রায় পাঁচ বছর পর এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

সম্মেলনের প্রস্তুতি নিয়ে জানাতে শনিবার (২৯ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

এসময় সম্মেলনের মাধ্যমে হল কমিটিতে যোগ্যদের নেতৃত্বে আনা হবে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস। সঞ্চালনা করেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব হল শাখার সাধারণ সম্পাদক রওনক জাহান রাইন।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন, হল সম্মেলন আয়োজক কমিটির সভাপতি বরিকুল ইসলাম বাঁধন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় ও হল শাখার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস বলেন, এবারের হল সম্মেলনটি আমরা এমন একটি সময়ে আয়োজন করতে যাচ্ছি, যখন একদিকে বৈশ্বিক মহামারি করোনার তৃতীয় ঢেউ শুরু হচ্ছে। অন্যদিকে সব প্রতিকূলতার মধ্যেও দেশের স্বপ্নযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক দেশরত্ন শেখ হাসিনা তার উন্নয়নের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রাকে আগের চেয়ে আরও বেশি বেগে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণের অবিরত সংগ্রামে দুঃসাহসী যোদ্ধা হিসেবে সবসময়ের মতোই পাশে থাকার নিমিত্তে উল্লেখিত দুই বাস্তবতাকে বিবেচনায় রেখেই এ হল সম্মেলন সফল করার চেষ্টা করছে।

স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণরোধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ আগেও যেমন বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করেছে, হল সম্মেলনেও করোনা সংক্রমণ ও স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারটিতে সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করা হবে। এ ব্যাপারে একটি বিশেষ উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সঞ্জিত চন্দ্র দাস বলেন, সম্মেলনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নেতৃত্ব নির্বাচন। এ বিষয়টিতেও আমাদের সাংগঠনিক নেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার দৃষ্টিভঙ্গিকেই সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়া হবে। বিশেষ করে একবিংশ শতাব্দীর এ পর্যায়ের নিউ নর্মাল রিয়েলিটিকে বিবেচনায় নিয়ে রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নের উপযোগী মানবসম্পদ গড়তে নেতৃত্ব দেওয়ার সক্ষমতাসম্পন্ন কর্মীদেরই নেতৃত্বে নিয়ে আসার জন্য চেষ্টা করা হবে।

নেতৃত্ব নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতাদের কোনো সুপারিশ রাখা হবে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে সঞ্জিত চন্দ্র দাস বলেন, আওয়ামী লীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা কোনো প্রার্থীকে পদ দেওয়ার বিষয়ে এখন পর্যন্ত ফোন বা অনুরোধ করেননি। আশা করি, সামনে এমনটি হবে না। ছাত্রলীগ একটি স্বাধীন সংগঠন। এখানে যারা যোগ্য, তারাই পদে পাবেন।

সম্মেলনের পর নতুন নেতৃত্ব ঘোষণার বিষয়ে ঢাবি ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, ‘দ্রুত সময়ের মধ্যেই আমরা কমিটি করবো। সম্মেলনের দু-তিন বা সর্বোচ্চ এক সপ্তাহের মধ্যে কমিটি ঘোষণা করা হবে।’

এএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]