সৎ শিক্ষক জাতির শ্রেষ্ঠ সম্পদ: মাউশি মহাপরিচালক

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক
ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ঢাকা কলেজ
প্রকাশিত: ০৬:৩৯ পিএম, ২১ মে ২০২২

সৎ ও দায়িত্বপরায়ণ শিক্ষক জাতির শ্রেষ্ঠ সম্পদ উল্লেখ করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও সমৃদ্ধ আগামী গড়তে শিক্ষকদের যথেষ্ট ভূমিকা পালন করতে হবে।

শনিবার (২১ মে) দুপুরে ঢাকা কলেজের বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আ. ন. ম. নজীব উদ্দিন খান খুররম অডিটোরিয়ামে সাবেক শিক্ষকদের বিদায় অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

‘আগামী প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেশপ্রেম ও দায়িত্বানুভূতি জাগ্রত করার দায়িত্ব শিক্ষকরা পালন করবেন। কেননা তাদের হাত ধরেই স্বর্ণালী সুন্দর ভবিষ্যৎ রচিত হবে। সাধারণ শিক্ষার্থীরা যেন কোনোভাবেই দুষ্টচক্রে না পড়ে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

মউশির মহাপরিচালক বলেন, ঢাকা কলেজের মতো আন্তরিক নিষ্ঠাবান সহকর্মী খুব কমই পেয়েছি। এখানে সব শিক্ষক তাদের নিজস্ব দায়িত্বের ব্যাপারে সচেতন। বয়োজ্যেষ্ঠ শিক্ষকরা তাদের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা দিয়ে শিক্ষার্থীদের সবসময় নানাভাবে সমৃদ্ধ করার প্রচেষ্টা করেছেন। আমরা তাদের জন্য শুভ কামনা জানাই।

ঢাকা কলেজ শিক্ষক পরিষদের আয়োজনে অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এ.টি.এম মইনুল হোসেন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এসময় স্বাগত বক্তব্য দেন শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক ড. মো. আব্দুল কুদ্দুস সিকদার। প্রধান অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

স্বাগত বক্তব্যে শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক ড. মো. আব্দুল কুদ্দুস সিকদার বলেন, ঢাকা কলেজ একটি অনন্য পরিবার। সুখে-দুঃখে সবাই একে অপরের অংশীজন। সাবেক শিক্ষকরাও আমাদের বাইরের কেউ নয়। তাদের সংবর্ধনা দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত গর্ববোধ করছি।

তাছাড়া আমাদের শিক্ষকরা দেশ জাতি গঠনে অগাধ ভূমিকা পালন করেছেন। তাদের সংবর্ধনা দেওয়া আমাদের দায়িত্বও। করোনাকালীন ও পরবর্তীতে অনেকেই নীরবে বিদায় নিয়েছেন। বিধিনিষেধসহ নানা সীমাবদ্ধতার কারণে যাদের সুন্দরভাবে বিদায় দেওয়া যায়নি সেসব শিক্ষকদের আমরা বিদায় সংবর্ধনা দিলাম। সব সময় তাদের জন্য কল্যাণ কামনা করি।

সৎ শিক্ষক জাতির শ্রেষ্ঠ সম্পদ: মাউশি মহাপরিচালক

শিক্ষকদের সম্মানিত করতে ভবিষ্যতেও এ ধরনের আয়োজনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার আহ্বান জানান কলেজ অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এ.টি.এম মইনুল হোসেন।

সংবর্ধিত সাবেক শিক্ষকরা হলেন, অধ্যাপক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন চৌধুরী, অধ্যাপক লায়লা মুসতারিন, অধ্যাপক মো. আবু তাহের পাটোয়ারী, অধ্যাপক কামার আফরোজ আহমেদ, অধ্যাপক মো. আবুল হোসেন, অধ্যাপক ফাতিমা জোহরা, অধ্যাপক রিয়াজুল হাকিম বাবুল, অধ্যাপক হোসনে আরা হাসি, অধ্যাপক হুসনে আরা ইয়াসমীন, অধ্যাপক বিপা চৌধুরী, অধ্যাপক এ.কে.এম. সালাউদ্দিন, অধ্যাপক ফরিদা আক্তার বানু, অধ্যাপক নমিতা দাস, শকুন্তলা সাহা, কানিজ মৌলুদা আখতার।

এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত হওয়া ঢাকা কলেজের ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক পুরজ্ঞয় বিশ্বাস, ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল কুদ্দুস সিকদার ও বিসিএস সাধারণ শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে জয়ী হওয়া ঢাকা কলেজের তিন শিক্ষক- ফারহানা আফরোজ, আদনান হোসেন, মো. নাসির উদ্দীনকে ও ফুলেল সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

নাহিদ হাসান/এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]