ঢাবির সিনেটে নীল দল ৩২, সাদা ৩

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সিনেটের শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনে আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন নীল দলের প্যানেল বিপুল ব্যবধানে জয়লাভ করেছে। আওয়ামীপন্থি শিক্ষকরা ৩৫টি পদের ৩২টিতে জয়ী হয়েছেন। অন্যদিকে বিএনপি-জামায়াত সমর্থক শিক্ষকরা ৩টিতে জয়ী হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৪ মে) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণ শেষে এ ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে সদস্য সংখ্যা ১০৫। এর মধ্যে শিক্ষক প্রতিনিধিদের ৩৫টি পদ রয়েছে। তাদের মেয়াদ তিন বছর। এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে সবশেষ শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন হয়েছিল ২০১৭ সালের ২২ মে। সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন নীল দল ও বিএনপিপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে।

নীল দল থেকে নির্বাচিত প্রতিনিধিরা হলেন- অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মো. জিয়াউর রহমান, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দীন, টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের অধ্যাপক আবু জাফর মো. শফিউল আলম ভূঁইয়া, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক আবদুল বাছির, ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স বিভাগের অধ্যাপক আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ইসতিয়াক মঈন সৈয়দ, প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ কে এম মাহবুব হাসান, ক্লিনিক্যাল ফার্মেসি অ্যান্ড ফার্মাকোলজি বিভাগের অধ্যাপক এস এম আবদুর রহমান, ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অধ্যাপক কে এম সাইফুল ইসলাম খান, গণিত বিভাগের অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জিনাত হুদা, আবহাওয়া বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক তৌহিদা রশিদ, অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের অধ্যাপক নিসার হোসেন, ফার্মেসি বিভাগের অধ্যাপক ফিরোজ আহমেদ, ভাষাবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ফিরোজা ইয়াসমীন, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মিহির লাল সাহা এবং ইসলাম শিক্ষা বিভাগের অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুর রশীদ।

আরও আছেন অর্গানাইজেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড লিডারশিপ বিভাগের অধ্যাপক মুহাম্মাদ আবদুল মঈন, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ ফিরোজ জামান, পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক মো. আবদুর রহিম, ফলিত গণিত বিভাগের অধ্যাপক আবদুস ছামাদ, ডিজাস্টার সায়েন্স অ্যান্ড ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্স বিভাগের অধ্যাপক মো. জিল্লুর রহমান, পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক মো. নিজামুল হক ভূঁইয়া, মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক মো. মাসুদুর রহমান, অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মিজানুর রহমান, শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের অধ্যাপক মো. রফিকুল ইসলাম, ফলিত গণিত বিভাগের অধ্যাপক মো. শফিকুল ইসলাম, রোবটিকস অ্যান্ড মেকাট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক লাফিফা জামাল, ভাষাবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সিকদার মনোয়ার মুর্শেদ ওরফে সৌরভ সিকদার, আইন বিভাগের অধ্যাপক সীমা জামান এবং কম্পিউটারবিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু।

নীল দল থেকে হারা তিনজনের মধ্যে দুইজন যৌন হয়রানির অভিযোগে অভিযুক্ত। তাদের প্রার্থীতা বাদ দেওয়ার জন্য নীল দলের অনেক শিক্ষকই অনুরোধ করেছিলেন।

এদিকে, সাদা দল থেকে নির্বাচিত তিন প্রতিনিধি হলেন- পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক লুৎফর রহমান, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম ও প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদ।

সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খলভাবে নির্বাচন আয়োজনে সহযোগিতা করায় সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কমিশনার মমতাজ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, মোট এক হাজার ৩৪৬টি ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এরমধ্যে ৪৩টি ভোট বাতিল হয়।

নির্বাচিতদের তালিকা উপাচার্য বরাবর পাঠানো হয়েছে। আজই (মঙ্গলবার) উপাচার্যের স্বাক্ষরের মাধ্যমে নির্বাচিতদের নাম চূড়ান্ত হবে। আগামী ১৬ জুন থেকে পরের তিন বছরের জন্য তারা দায়িত্বপ্রাপ্ত হবেন বলেও জানান মমতাজ উদ্দিন আহমেদ।

আল সাদী ভূঁইয়া/কেএসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]