তিন মৎস্যবিজ্ঞানীকে আজীবন সম্মাননা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৬:২৩ পিএম, ২৮ মে ২০২২

বাংলাদেশের মৎস্যসম্পদের উন্নয়নে অবদানের জন্য তিন মৎস্যবিজ্ঞানীকে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২৮ মে) বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলে নবম আন্তর্জাতিক দ্বিবার্ষিক মৎস্য সম্মেলন ও মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা দেওয়া হয়।

ঢাকায় দুই দিনব্যাপী টেকসই মাছ চাষ, স্থিতিস্থাপক মৎস্য ব্যবস্থাপনা এবং মহামারি চ্যালেঞ্জ অতিক্রমের ওপর বাংলাদেশ ফিসারিজ রিসার্চ ফোরাম (বিএফআরএফ) ও ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া সারাওয়াকের (ইউনিমাস) যৌথ উদ্যোগে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সম্মাননাপ্রাপ্তরা হলেন- নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন, বাংলাদেশ ফিসারিজ রিসার্চ ইনস্টিটিউটের সাবেক মহাপরিচালক ড. মো. গোলাম হোসেন এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. মো. ফজলুল আউয়াল মোল্লা।

jagonews24

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন বিএফআরএফের সাধারণ সম্পাদক ও শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ, একোয়াকালচার ও মেরিন সাইন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ. এম. সাহাবউদ্দিন।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে টেকসই মাছ চাষ, পুষ্টি নিরাপত্তা এবং এ খাতে মহামারি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার ওপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মৎস্য অধিদপ্তরের পরিচালক (অভ্যন্তরীণ মৎস্য) শামীম আরা বেগম, এবং বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) ড. মো. আনিসুর রহমান।

jagonews24

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) বাংলাদেশ প্রধান রবার্ট ডি সিম্পসন।

দিনের দ্বিতীয় ভাগে স্থিতিস্থাপক মৎস্য সম্পদের সংরক্ষণ এবং ব্যবস্থাপনার ওপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এফএওর সিনিয়র কারিগরি উপদেষ্টা ড. মুতিসুঙ্গিলিরে কাচুলু।

দুই দিনব্যাপী মৎস্য সম্মেলন ও গবেষণা মেলায় বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, মৎস্য অধিদপ্তর, বিএফআরআই, বেসরকারি সংস্থা, উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ীসহ মোট ৩৮০ জন অংশ নেন। বাংলাদেশ ও বিদেশের গবেষকদের মধ্যে এবারের সম্মেলনে নয়টি গ্রুপে মোট ১৭৪টি প্রবন্ধ জমা পড়ে। এর মধ্যে পর্যালোচনাকারী প্যানেল বাছাই করে কিছু প্রবন্ধ সম্মেলনে উপস্থাপনের জন্য মনোনীত করেন। তার মধ্য থেকে আটজন গবেষককে মৌখিকভাবে গবেষণাকর্ম উপস্থাপনার জন্য উল্লেখযোগ্য গবেষণাকর্মের স্বীকৃতি স্বরূপ সেরা পুরস্কার ও পাঁচজনকে পোস্টারের মাধ্যমে গবেষণাকর্ম উপস্থাপনার জন্য উল্লেখযোগ্য গবেষণাকর্মের স্বীকৃতি স্বরূপ সেরা পুরস্কার দেওয়া হয়।

এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]