রাবিতে বিশৃঙ্খলার অভিযোগ প্রমাণ হলেই হল থেকে বহিষ্কার

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাবি
প্রকাশিত: ০১:১৪ পিএম, ২৫ জুন ২০২২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ১৭টি আবাসিক হলে কোনো শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বিশৃঙ্খলার অভিযোগ প্রমাণিত হলেই তাকে হল থেকে বহিষ্কার করা হবে। জোরপূর্বক হলের সিট থেকে নামানো কিংবা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রাধ্যক্ষ পরিষদ সমন্বিতভাবে ব্যবস্থা নেবে।

শুক্রবার (২৪ জুন) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব আব্দুল লতিফ হলে প্রাধ্যক্ষ পরিষদের এক জরুরি সভা শেষে জাগো নিউজকে এসব কথা জানান সমন্বিত হল আহ্বায়ক অধ্যাপক ফেরদৌসী মহল।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে শৃঙ্খলা ও পড়াশোনার সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষার্থে সমন্বিতভাবে সব রকমের ব্যবস্থা গ্রহণে কাজ করবে প্রাধ্যক্ষ পরিষদ। সব শিক্ষার্থী বৈধপন্থা অবলম্বনের মাধ্যমে হলে ওঠার যোগ্যতা রাখে। অবৈধভাবে কেউ হলে থাকার অধিকার রাখে না।

অধ্যাপক ফেরদৌসী মহল আরও বলেন, হলে কে থাকবে কে থাকবে না, কে উঠবে কে উঠবে না- সেটা হল প্রশাসন দেখবে। কোনো শিক্ষার্থী এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হলে বিশৃঙ্খলার দায়ে কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। এ বিষয়ে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

এর আগে গত ১০ দিনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন আবাসিক হলে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীকে হল থেকে নামিয়ে দেওয়াসহ অবৈধভাবে সিট দখলের অভিযোগ রয়েছে। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে মারধর করে মুন্না ইসলাম নামের এক আবাসিক শিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে হল শাখা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।

এছাড়া হলগেটে তালা ও হল প্রাধ্যক্ষদের সাথে খারাপ আচরণ করারও অভিযোগ পাওয়া গেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে

আবাসিক হলে ছাত্রলীগের এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব আব্দুল লতিফ হলের সামনে অবস্থান নেন শিক্ষকরা। হলে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা নিরসনে প্রশাসনের কার্যকরী পদক্ষেপের পাশাপাশি অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

মনির হোসেন মাহিন/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]