রাবিতে হলে উঠতে বিছানাপত্র নিয়ে গেটের সামনে বৈধ শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাবি
প্রকাশিত: ০৮:২১ পিএম, ০১ জুলাই ২০২২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের অনাবাসিক ও বহিরাগত শিক্ষার্থীদের বুধবারের (২৯ জুন) মধ্যেই হল ত্যাগের নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। একই সঙ্গে শুক্রবার (১ জুলাই) বৈধ শিক্ষার্থীদের হলে ওঠানো হবে বলেও ঘোষণা দেয় হল প্রশাসন। পাশাপাশি আজ হলে অভিযান পরিচালনার কথা রয়েছে।

বিকেলে সরেজমিন দেখা যায়, বিছানাপত্র নিয়ে সোহরাওয়ার্দী হল গেটের সামনে অবস্থান করছেন বৈধ শিক্ষার্থীরা। তবে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত হলে অভিযান শুরু হয়নি।

এর আগে ২৪ জুন অবৈধ শিক্ষার্থীদের হলত্যাগের নির্দেশ দেয় প্রশাসন। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অনাবাসিক ও বহিরাগত (অন্য হল) যারা এই হলে অবস্থান করছে তাদের বুধবারের মধ্যে হলত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হলো। কোনো শিক্ষার্থী তার সমস্যার বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে হল প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে এ সময়ের মধ্যে অভিভাবকসহ হল প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগের নির্দেশ দেওয়া হলো।

jagonews24

বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা যারা এখনো হলে উঠতে পারেননি ১ জুলাই তাদের জন্য নির্ধারিত কক্ষে ওঠানোর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

হল প্রশাসনের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী হল গেটের সামনে অবস্থান করছিলেন বৈধ শিক্ষার্থীরা। নির্দেশনা মতে বিকেল ৫টা থেকে হল গেটের সামনে জড়ো হতে থাকেন তারা।

jagonews24

হলে উঠতে আসা তৃতীয় বর্ষের বৈধ শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘স্যার আমাদের আজ হলে তুলে দেবেন। তাই সাহেব বাজার থেকে মেস ছেড়ে বিছানাপত্র নিয়ে চলে এসেছি। আজকেই আমাদের হলে উঠতে হবে, নাহলে আমাদের হলের বারান্দায় হলেও থাকতে হবে। কারণ মেস ছেড়ে দিয়েছি। এখন আর থাকার জায়গা নেই।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হল প্রাধ্যক্ষ ড. মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘সোহরাওয়ার্দী হলে অনাবাসিক ও অবৈধভাবে অবস্থান করছে এমন শিক্ষার্থীদের ২৯ জুনের মধ্যে হলত্যাগের নির্দেশ দিয়েছিলাম। যারা নেমেছে ভালো আর যারা অবৈধ হয়ে এখনো হল ত্যাগ করেনি তাদের হল অভিযানের মাধ্যমে নামামো হবে। নামাজের পর অভিযান শুরু হবে বলে জানান তিনি।

মনির হোসেন মাহিন/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]