ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে ঢামেকের ইন্টার্নকে মারধরের অভিযোগ

মারধরের শিকার ইন্টার্ন চিকিৎসক সাজ্জাদ হোসেন

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কয়েকজন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। সোমবার (৮ আগস্ট) রাত সাড়ে ৯টার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগীর নাম ডাক্তার মোঃ সাজ্জাদ হোসেন। তিনি ঢাকা মেডিকেলের সায়কিয়াট্রি বিভাগে ইন্টার্ন চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত আছেন।

এদিকে ভুক্তভোগী চিকিৎসক এ ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে দাবি করেছেন। তবে তিনি এখন পর্যন্ত কাউকে চিহ্নিত করতে পারেননি। এখন পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগও দায়ের করেননি বলে জানিয়েছেন।

ডা. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আমি গতকাল রাত সাড়ে ৯টায় শহীদ মিনারে বসেছিলাম। তখন কয়েকজন এসে জিজ্ঞেস করে আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কিনা৷ তাদেরকে জানাই আমি ঢামেকের ইন্টার্ন চিকিৎসক৷ তারা আইডি কার্ড দেখাতে বলে৷ আমার কাছে আইডি ছিল না। আমি বলি ক্যাম্পাসের পাশেইতো আসছি। আইডি কার্ড ব্যাগে। সঙ্গে করে নিয়ে আসিনি। একথা বলার পর তারা ৩-৪টি থাপ্পড় মারে। থাপ্পড়ের কারণ জিজ্ঞেস করলে দ্বিতীয় দফায় যতক্ষণ পারে মারধর করে। এতে মাথায় ও কানের নিচে নাকে আঘাত পাই। পরে আমি মাটিতে পড়ে গেলে আমাকে লাথি মারে। মাথায় স্যান্ডেলের মাটি লেগে থাকতে দেখি।

মারধরকারী কাউকে চেনেন কি-না জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, আমি কাউকে চিনতে পারি নি। তারা ঢাবি শিক্ষার্থী বলে দাবি করেছে। তাদের পরনে ঢাবির লোগোসহ টি-শার্ট ছিল। দেখে মাদকাসক্ত মনে হচ্ছিল।

আল-সাদী ভূঁইয়া/এসএইচএস/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।