বন্ধুর সহযোগিতায় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা দিলেন অদম্য রিফাত

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডায়না চত্বর। হাতে পরীক্ষার ফাইল। হুইল চেয়ারে ধীরে ধীরে বিজ্ঞান অনুষদের দিকে এগিয়ে আসছেন একটি ছেলে। তার নাম রিফাত হোসেন। তাকে সহযোগিতা করছেন তার বন্ধু আদনান। কারণ রিফাত একা চলতে অক্ষম।

শনিবার (১৩ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে ‘বি’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরুর আগে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এমন দৃশ্য চোখে পড়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শারীরিক প্রতিবন্ধী রিফাত হোসেন চুয়াডাঙ্গার বোয়ালিয়া গ্রামের ফাহিদুর রহমানের ছোট ছেলে। নিজ গ্রামের নিউ মেমোরিয়াল হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিকে জিপিএ ৪.৬৩ এবং চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ থেকে জিপিএ ৫.০০ পেয়ে উত্তীর্ণ হন। শারীরিক ত্রুটি থাকলেও স্বপ্ন ছোঁয়ার প্রাণবন্ত চেষ্টা রিফাতের।

jagonews24

জন্মের পর থেকেই রিফাত তার প্রতিবন্ধিত্বের কাছে হার মানেননি। তাই তো ছুটে এসেছেন উচ্চ শিক্ষার প্রাঙ্গণে আইন বিভাবে ভর্তি হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে। রিফাতের এ স্বপ্ন যাত্রার সারথি হয়েছেন তারই ছোটবেলার বন্ধু আদনান। তার এমন উদার মনোভাব দেখে মুগ্ধ হয়েছেন অনেকেই।

পরীক্ষা শেষে কথা হয় শারীরিক প্রতিবন্ধী রিফাত ও আদনানের সঙ্গে। মুখে অস্পষ্ট কথার মাধ্যমেই রিফাত জানান তার বুক ভরা স্বপ্নের কথা।

তিনি বলেন, ‘ছোটবেলা থেকে অনেকের সমালোচনা শুনে বড় হয়েছি। তবে থেমে যাইনি। আমার এ পর্যন্ত আসার পেছনে আমার পরিবার ও বন্ধুদের সহযোগিতার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। শুনতে হয়েছে। তবে এগুলো অতিক্রম করে লক্ষ্যে অটুট ছিলাম।’

রিফাতের বন্ধু আদনান বলেন, ‘ছোটবেলা থেকে আমরা একসঙ্গে পড়াশোনা করেছি, বড় হয়েছি। আমরা ওকে সবসময় সহযোগিতার চেষ্টা করেছি। প্রতিবন্ধকতা জয় করে ওর সাফল্য আমাদের ভালো লাগে। আমি চাই ওর স্বপ্ন পূরণ হোক।’

সম্প্রতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় ১৪৪তম স্থান অর্জনকারী রিফাত প্রতিষ্ঠিত হতে চান জীবনে। ইচ্ছে আছে তার গ্রাম তথা দেশের সুবিধা বঞ্চিত প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করার।

রুমি নোমান/এসজে/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।