গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা: ‘বি’ ইউনিটে জবিতে উপস্থিতি ৯২ শতাংশ

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক
ক্যাম্পাস প্রতিবেদক ক্যাম্পাস প্রতিবেদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:১১ পিএম, ১৩ আগস্ট ২০২২

দেশের ২২টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভুক্ত ‘বি’ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (১৩ আগস্ট) দুপুর ১২টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত পরীক্ষা হয়।

অন্যান্য কেন্দ্রের মতো জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) অধীনে মোট চারটি কেন্দ্রেও ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। জবির চারটি কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার ছিল ৯২ (৯২.৪) শতাংশ। অর্থাৎ ৮ শতাংশ পরীক্ষার্থী ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষায় অংশ নেয়নি।

জবির কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. রইছ উদ্দীন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, জবির চারটি কেন্দ্রে উপস্থিতির হার ছিল ৯২.৪ শতাংশ। পরীক্ষা শেষে অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়েছে।

জানা গেছে, যেসব ভর্তিচ্ছু পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবে জবিকে নির্ধারণ করেছিল তাদের আসন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসসহ রাজধানীর মোট চারটি কেন্দ্রে সাজানো হয়েছিল। চারটি কেন্দ্রে মোট ২১ হাজার ৭৬৯ পরীক্ষার্থীর আসন বিন্যাস সাজানো হয়। এর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেয় ২০ হাজার ১১৫ (৯২.৪ শতাংশ) পরীক্ষার্থী। অর্থাৎ পরীক্ষায় অংশ নেয়নি ১ হাজার ৬৫৪ জন।

এদিকে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন কক্ষ পরিদর্শন করেন গুচ্ছ ভর্তি কমিটির যুগ্ম-আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক। এসময় উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল এবং সহকারী প্রক্টররা।

আগামী ২০ আগস্ট বাণিজ্য অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজিত গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শেষ হবে।

প্রসঙ্গত, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পদ্ধতিতে অংশ নিলেও এবার নতুন যুক্ত হয়েছে কিশোরগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

শান্ত রায়হান/এমআইএইচএস/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।