নিখোঁজ বাবার সন্ধান চায় জবি শিক্ষার্থী

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকার অবসরপ্রাপ্ত সহকারী সচিব মো. সোলায়মান আলী তালুকদারের সন্ধান চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তার ছেলে মো. সাবিত সিয়াম। সাবিত সিয়াম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় নাট্যকলা বিভাগের শিক্ষার্থী।

শনিবার (১৩ আগস্ট) বিকেল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ২০২০ সালের ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থেকে আমার বাবাকে গুম করা হয়। চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার সময় বাবা একটি ফ্ল্যাট বন্ধক নেওয়ার জন্য যাত্রাবাড়ীর স্থানীয় মাসুদ মোল্লা নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে পরিচয় হয়। মাসুদ মোল্লা বাবার লালবাগের বাসায় যাতায়াত করতেন। তিনি আমার বাবার কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে ফ্ল্যাট বন্ধকের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। কিছুদিন পর ব্যবসার কথা বলে বাবার পেনশনের ৩৭ লাখ টাকা ঋণ নেন। সম্পূর্ণ টাকা পাওয়ার পর বাবাকে ফ্ল্যাট থেকে বেদখল করে। এরপর বাবা ওই টাকা ফেরত চাইলে মাসুদ মোল্লা ইসলামি ব্যাংকে ১২ লাখ টাকা এবং উত্তরা ব্যাংকের ১৭ লাখ টাকার দুটি চেক দেন। চেক দিয়ে টাকা তুলতে গেলে জানা যায়, দুটি চেকেই ভুয়া।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে ২০২০ সালের ৬ জুলাই আইনি সহায়তার জন্য আমার বাবা যাত্রাবাড়ী থানায় দ্বারস্থ হন। বাবার এ দুঃসময়ে আমার সৎমা মাহফুজা বেগম তাকে বাসা থেকে বের করে দেন। অসুস্থ বাবাকে নিয়ে আমি মিরপুরের বাসায় সুস্থ রাখার চেষ্টা করি। এরপর ২২ ডিসেম্বর থেকে আমার বাবা হঠাৎ করে নিখোঁজ হয়ে যান।

সাবিত সিয়াম বলেন, গত বছরের ২৯ অক্টোবর বাবার সন্ধান চেয়ে নারায়ণগঞ্জ কোর্টে আমি বাদী হয়ে ২৭৩/২১ নম্বর মামলা দায়ের করি। বিষয়টি পিবিআই নারায়ণগঞ্জকে দায়িত্ব দিলে আইও আসামির মাধ্যমে প্রভাবিত হয় এবং বাবা পাগলের মতো হয়ে হারিয়ে গেছে বলে জানায়। কিন্তু বাবা পঙ্গু অবস্থায় করোনার সময়ে কি করে হারিয়ে যায়। সব ঘটনা শুনে, দেখে আমরা নিশ্চিত হলাম তাকে গুম করা হয়েছে। আমি আমার বাবার সন্ধান চাই।

এমএএইচ/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।