১৩ দাবি নিয়ে আত্মপ্রকাশ করলো ‘গণতান্ত্রিক ছাত্র জোট’

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৪:০৫ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২২

সরকারের পদত্যাগ, গণতান্ত্রিক শিক্ষাঙ্গন, শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ ও সংকোচন নীতি বাতিলসহ ১৩ দফা দাবিতে ‘গণতান্ত্রিক ছাত্র জোট’ নামে একটি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। তাদের দাবির মধ্যে আরও রয়েছে- ছাত্র সংসদ নির্বাচন, বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বায়ত্তশাসন নিশ্চিত ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ সংগঠনের ঘোষণা দেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি সালমান সিদ্দিকী।

৮টি ছাত্র সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ‘গণতান্ত্রিক ছাত্র জোট’র সংগঠনগুলো হলো- সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট (বাসদ), বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট (মাকর্সবাদী), বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী, বিপ্লবী ছাত্র যুব আন্দোলন, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ এবং গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল।

জোটের প্রথম কর্মসূচি হিসেবে ১৩ দফা দাবিতে আগামী ১৮ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ছাত্র সমাবেশ করবে গণতান্ত্রিক ছাত্র জোট।

jagonews24

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জোটের সমন্বয়ক সালমান সিদ্দিকী বলেন, বাংলাদেশের উদ্ভূত পরিস্থিতি থেকে ছাত্র সমাজসহ আপামর জনগণ মুক্তি চাইছে। দেশের যেকোনো দুঃসময়ে এদেশের ছাত্র সমাজ কখনো নিশ্চুপ থাকেনি। আমরা মনে করি এই ফ্যাসিবাদী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ছাত্র আন্দোলন গড়ে তোলা সময়ের কর্তব্য হিসেবে উপস্থিত হয়েছে।

লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে এমন সংকটময় সময়ের মোকাবিলা করে জনগণের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আজ ছাত্রদের অগ্রসর ভূমিকা পালন করতে হবে। এই প্রয়োজন অনুধাবন থেকেই আমরা ৮টি ছাত্র সংগঠন সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক অবস্থান থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলতে এবং পরিচালনার জন্য একত্রিত হয়েছি। আমরা ফ্যাসিবাদী আওয়ামী লীগ সরকারকে জনগণের আন্দোলনের মাধ্যমে উচ্ছেদ করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, আমাদের এই জোট শিক্ষার গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষা এবং শিক্ষার্থীদের ন্যায়সঙ্গত দাবির প্রশ্নে আন্দোলন গড়ে তুলবে। আওয়ামী ফ্যাসিবাদী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে পাহাড় কিংবা সমতলে জনজীবনের সমস্যা সংকট নিরসনে এবং জাতীয় সম্পদ রক্ষায় আন্দোলন গড়ে তুলবে।

এছাড়াও শ্রমিক, কৃষক, মেহনতি ও নিপীড়িত জনগণের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে ভূমিকা পালন করবে। সারাবিশ্বে নিপীড়িত মুক্তিকামী মানুষের গণতান্ত্রিক লড়াইয়ে সমর্থন জানাবে এবং সম্রাজ্যবাদ ও আধিপত্যবাদের বিরুদ্ধে আপসহীন আন্দোলন গড়ে তুলবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয়, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি সাদেকুল ইসলাম সোহেল, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি মিতু সরকার, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের সভাপতি সায়েদুল হক নিশান, চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি সুনয়ন চাকমা, বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তাওফিকা প্রিয়া প্রমুখ।

আল-সাদী ভূঁইয়া/কেএসআর/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।