১০০ পদের পিঠা নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শীত উৎসব

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাবি
প্রকাশিত: ০৫:৫৩ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) চলছে শীত উৎসব। এ উৎসবকে ঘিরে বিভিন্ন স্টলে থাকছে বাহারি পিঠা। আছে নাচ-গান-আনন্দ-উল্লাস, আবৃত্তিসহ সাংস্কৃতিক আয়োজনও।

ক্যাম্পাস বাউলিয়ানার আয়োজনে শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদুল্লাহ একাডেমিক কলা ভবনের সামনের আম বাগানে জমে উঠেছে এ শীত উৎসব।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিকেল থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদুল্লাহ একাডেমিক ভবনের সামনে শিক্ষার্থীদের ভিড়ে জমে উঠেছে পিঠা পুলি উৎসব। উৎসবে বিভিন্ন রকম পিঠার সমাহার নিয়ে বসেছে ১২টি স্টল। স্টলগুলোর মধ্যে আছে মৌচাক পিঠা উৎসব, মিঠাই, পাঠশালা পিঠাঘর, আদি পিঠাশৈলী, রসমঞ্জরী, পোষালি, পিঠাজলি, পিঠাবাহার, পিঠার রস।

দুধপুলি, চন্দ্র পুলি, সুজির কাটলি বরফি, জামাই পিঠা, পাটি সাপটা, গোলাপ ফুল, লবঙ্গ পিঠা, শামুল পিঠা, রুপালি পিঠা, বুটের বরফি, মোহন ভোগ, ডিম সুন্দরী, মাছের পিঠা, গাজরের হালুয়া ডিমপুরি, গোলাপ, আরশি নগর, ঝাল-মিষ্টি, হৃদয়হরণ পিঠা, শীম ফুল পিঠা, সূর্যমুখী, পাকোয়ান পিঠা, শামুক পিঠা, লবঙ্গ লতিকা, রসে ভরা সবজি পিঠা, রস মলাই খিরপুলিসহ ১০০ পদের পিঠা শোভা পাচ্ছে স্টলগুলোতে। বাহারি নামের এসব পিঠা খেতে শিক্ষার্থীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। ১০ টাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন দামে বিক্রি হচ্ছে।

পিঠা পুলি উৎসবে আসা ম্যানেজমেন্ট বিভাগের তাজ নূর বর্ণ বলেন, এ শীতে মায়ের হাতের পিঠা খুব মিস করছি। ক্যাম্পাসে বসে শীতের পিঠা পুলি উৎসবের আয়োজনের জন্য ক্যাম্পাস বাউলিয়ানাকে ধন্যবাদ। পিঠার মান খুব ভালো। বিভিন্ন জাতের পিঠা খেয়েছি।

পিঠা খেতে মির্জাপুর থেকে এসেছেন বীথি আক্তার। তিনি বলেন, শোনা মাত্রই পিঠা খেতে এ উৎসবে চলে এসেছি। কয়েক রকম পিঠা খেয়েছি এরইমধ্যে। খুবই সুস্বাদু পিঠা এবং দামও তুলনামূলক কম। বিকেলে কনসার্টেও থাকবো।

পিঠা উৎসবের আয়োজনে থাকা এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ধারণ এবং সম্প্রীতির মেলবন্ধনকে অটুক রাখতে আমাদের এ আয়োজন। প্রতিবছর এ ধরনের আয়োজন ভবিষ্যতেও করবেন।’

মনির হোসেন মাহিন/এসজে/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।