Jago News logo
Banglalink
ঢাকা, রোববার, ২৫ জুন ২০১৭ | ১১ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সুনামগঞ্জে সচিবের বেফাঁস মন্তব্যের প্রতিবাদ


সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০১:২৭ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০১৭, শুক্রবার
সুনামগঞ্জে সচিবের বেফাঁস মন্তব্যের প্রতিবাদ

দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিবের বেফাঁস মন্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ‘হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন’ নামের একটি সামাজিক সংগঠন। শুক্রবার বেলা ১১টায় সুনামগঞ্জ জেলা শহরের আলফাত উদ্দিন স্কয়ারে (ট্রাফিক পয়েন্ট) এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা, ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণে অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি এবং হাওরের ফসল রক্ষায় নদী-খাল ও বিল খননের দাবিতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি দেন এই সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

সর্বশেষ সুনামগঞ্জকে দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি জানিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলেও ছাতকের একটি সভায় বক্তব্য রাখেন সুজন (সুশাসনের জন্য নাগরিক) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার।

সংগঠনের সদস্য সচিব সাংবাদিক বিন্দু তালুকদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, যুগ্ম আহ্বায়ক যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, বিজন সেন রায়, সংগঠনের সদস্য ও বিএনপি নেতা রুহুল আমীন, সংস্কৃতিকর্মী জাহাঙ্গীর আলম ও কৃষক আব্দুল কাইয়ুম প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, দুর্যোগ ও ত্রাণ সচিবের অপমানজনক মন্ত্যব্যে আমরা সুনামগঞ্জবাসী স্তম্ভিত। দুর্যোগকালীন সময়ে এ ধরনের উপহাস করায় তার শাস্তি দাবি করছি। অন্যথায় আন্দোলন তীব্রতর হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা।

প্রসঙ্গত, বুধবার রাতে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ কামাল বলেন, ‘সুনামগঞ্জকে যারা দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন তাদের কোনো জ্ঞান নেই। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইনের ২২ ধারায় বলা হয়েছে কোনো এলাকার অর্ধেকের উপরে জনসংখ্যা মরে যাওয়ার পর ওই এলাকাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা করতে হয়। এখানে তো একটি ছাগলও মেরেনি’।

সচিবের এমন মনগড়া তথ্য শোনার পর উপস্থিত জনপ্রতিনিধি, সুধীজন, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের লোকদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। সেইসঙ্গে ফসলহারা কৃষকের পক্ষে আন্দোলনকারীদের নিয়ে সচিবের এমন কটূক্তির প্রতিবাদে উপস্থিত অধিকাংশ গণমাধ্যম কর্মীরা সভা থেকে বেরিয়ে আসেন।

রাজু আহমেদ রমজান/এফএ/এমএস

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Jagojobs