থানা থেকে হত্যা মামলার আসামিকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৩:৩৬ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৩:৪২ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার কলেজছাত্র সাকির গোমস্তা (১৭) হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত এক আসামিকে গ্রেফতারের পর থানা থেকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার আসামি ছেড়ে দেয়ার ঘটনা জানাজানি হলে তোলপাড় শুরু হয়।

এদিকে, এ ঘটনার ৫ দিন অতিবাহিত হলেও কোনো আসামিকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এসব ঘটনায় নিহতের স্বজনদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

গত মঙ্গলবার দুপুরে পালরদী মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদ করায় স্থানীয় যুবলীগ কর্মীরা সাকিরের ওপর হামলা চালায়। মঙ্গলবার দিনগত রাত দেড়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সাকিরের মৃত্যু হয়।

নিহত সাকিরের মা আলেয়া বেগম ও বড় ভাই জাকির হোসেন অভিযোগ করেন, ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা সাকিরের ওপর হামলাকারী ও হত্যা মামলার ৬ নম্বর আসামি ফাহিমকে (১৮) ঘটনাস্থল থেকে ধরে গৌরনদী থানার এসআই শামসুউদ্দিনের কাছে সোপর্দ করে।

এরপর ওই এসআই শামসুউদ্দিন আসামি ফাহিমকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। ওইদিন সন্ধ্যায় থানার ওসি মোটা অঙ্কের টাকা ঘুষ নিয়ে ফাহিমকে ছেড়ে দেয়।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ফাহিমকে ধরে থানার নেয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ হন গৌরনদী থানার ওসি মনিরুল ইসলাম। ওসি আসামি ফাহিমকে ছেড়ে দিতে বললে ওই এসআই আসামিকে ছেড়ে না দিয়ে ডিউটি অফিসারকে আসামি বুঝিয়ে দেন।

এ প্রসঙ্গে গৌরনদী মডেল থানা পুলিশের ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, ফাহিমকে ছেড়ে দেয়া হয়নি। তিনি থানা থেকে পালিয়ে গেছেন। তখন কেউ লিখিত অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেনি। এছাড়া আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও ওসি জানান।

সাইফ আমীন/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :