প্রধান প্রকৌশলীকে লাঞ্ছিত, কাউন্সিলরকে বরখাস্তের প্রস্তাব

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০১:০৫ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০১:১০ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক) প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমানকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় নারী কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনকে কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত করতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হবে।

আগামীকাল বুধবার মন্ত্রণালয়ে এ চিঠি প্রেরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। মঙ্গলবার বিকেলে সিসিক কার্যালয়ে মেয়র ও কাউন্সিলরদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমানকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠে কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনের বিরুদ্ধে। এতে হঠাৎ করে নগর ভবনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। তারা কাউন্সিলর শামীমাকে একটি কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসেন মেয়র আরিফ। বৈঠক শেষে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নগর ভবনের নিচে এসে বিক্ষুব্ধ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন মেয়র।

মেয়র আরিফ বলেন, ‘যে ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য আমি দুঃখিত। এটি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনকে বরখাস্ত করতে আগামীকাল বুধবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হবে।’

মেয়র আরিফের এমন বক্তব্যের পর নগর ভবনের বিক্ষুব্ধ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শান্ত হয়ে কোনো কর্মসূচি প্রদান থেকে বিরত থাকেন। তবে তাদের দাবি, মেয়র ও কাউন্সিলরদের যে বৈঠক হয়েছে তার রেজুলেশন দিতে হবে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে নারী কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীন নগর ভবনে প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমানের কক্ষে যান। তিনি তার ওয়ার্ডে একটি উন্নয়ন কাজ করে দিতে বলেন নুর আজিজকে। এ সময় নুর আজিজ কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনকে বলেন, ‘এ কাজ করার এখতিয়ার নেই আমার। মেয়র যদি বলেন, তবে আমি কাজ করে দেব। তখন শামীমা স্বাধীনের কথা কাটাকাটি হয় নুর আজিজের সঙ্গে।

এরপর নুর আজিজুর রহমান অভিযোগ করেন তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিতও করেছেন কাউন্সিলর শামীমা। এ খবর নগর ভবনে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তারা বিক্ষোভ করতে থাকেন। একপর্যায়ে কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীনকে নগর ভবনের ৩০৪ নম্বর কক্ষে অবরুদ্ধ করে রেখে বাইরে বিক্ষোভ করতে থাকেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ছুটে আসেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব। পরে মেয়র আরিফ কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠক শেষে মেয়র শামিমাকে বরখাস্তর আবেদন করবেন বলে জানান।

কাউন্সিলর শামীমা স্বাধীন জাগো নিউজকে বলেন, আমি নুর আজিজুর রহমানকে লাঞ্ছিত করিনি। আমার ওয়ার্ডের উন্নয়ন কাজ দ্রুত শেষ করে জনগণের ভোগান্তি দূর করতে বললে তিনি আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এনিয়ে কথা কাটাকাটি হলে নুর আজিজুর রহমান ও তার সহযোগিরা আমাকে নগরভবনের একটি কক্ষে আটকে রাখেন। কিন্তু একটি মহল মেয়রসহ অন্যদের ভুল তথ্য দিয়ে আমাকে হয়রানির চেষ্টা করছেন।

এ ব্যাপারে সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমানের বক্তব্য জানতে তার ব্যবহৃত ফোনে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

ছামির মাহমুদ/এমএএস/আইআই

আপনার মতামত লিখুন :