বরিশালের ৭ রুটে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাস চলার সিদ্ধান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৯:৪৫ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

বরিশাল থেকে ঝালকাঠী-ভান্ডারিয়া-পিরোজপুর-খুলনাসহ ৭ রুটে সরাসরি বাস চলাচল নিয়ে সৃষ্ট সমস্যার স্থায়ী সমাধান হয়নি।

রোববার দুপুরে বিভাগীয় কমিশনারের সভাকক্ষে কমিশনার মো. শহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমঝোতা সভায় ৭ রুটে সরাসরি বাস চলাচল আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বরিশাল, ঝালকাঠী, বরগুনা ও পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার এবং ওই ৪ জেলার পরিবহন মালিক-শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা সভায় অংশগ্রহণ করেন।

সভায় অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) নুরুল আমিনকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। রুট পারমিট নিয়ে ঝালকাঠী জেলা বাস মালিক সমিতির সঙ্গে বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলা বাস মালিক সমিতির সৃষ্ট দ্বন্দ্ব নিরসনে পদক্ষেপ নেবে ওই কমিটি।

ঝালকাঠী জেলা বাস সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিলন মাহমুদ বাচ্চু বলেন, সমঝোতা সভায় তারা তাদের দাবি উপস্থাপন করেছেন। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আগামী ২৪ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতির ভোলা সফর এবং ৮ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর বরিশাল সফর পর্যন্ত সময় চাওয়া হয়। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সফর সফল করতে প্রশাসনের দেয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বরিশাল থেকে ঝালকাঠী-ভান্ডারিয়া-পিরোজপুর-খুলনাসহ ৭ রুটে সরাসরি বাস চলাচল অব্যাহত থাকবে।

বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি আজিজুর রহমান শাহিন জানান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনারকে নিয়ে গঠিত কমিটির কাছে ৪ জেলার বাস সমিতির নেতৃবৃন্দ সংশ্লিষ্ট রুটের পারমিটসহ যাবতীয় কাগজপত্র জমা দেবেন। কমিটি কাগজপত্র যাছাই-বাছাই করে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারির সভায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেবে। প্রয়োজনে নতুন করে রুট পারমিট দেয়া হবে।

তিনি জানান, আগামীকাল সোমবার থেকে বরিশালের পশ্চিমাংশের ৭ রুটে তারা সরাসরি বাস চালানো শুরু করবেন। ঝালকাঠী মালিক সমিতির বাসও যাত্রী নিয়ে বরিশালের রূপতলী টার্মিনালে আসবে।

বরিশাল পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) উত্তম কুমার পাল বলেন, আজকের সভায় গঠিত কমিটিতে বরিশাল, ঝালকাঠী, পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলার জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার এবং ৪ জেলার বাস মালিক-শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঝালকাঠী মালিক সমিতির বাস পটুয়াখালী ও বরগুনার রুটে চলাচল করতে দেয়ার দাবিতে ঝালকাঠীর বাস গত ৩ জানুয়ারি থেকে বরিশালে আসছে না। তাদের বাসের যাত্রীদের বরিশাল-ঝালকাঠীর সিমান্ত রায়াপুর নামক স্থানে নামিয়ে দেয়া হচ্ছে। আবার বরিশাল মালিক সমিতির বাসও ঝালকাঠী জেলা সীমানায় ঢুকতে না দেয়ায় ৭ রুটে সরাসারি বাস চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। একই দাবিতে গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ ছিল।

সাইফ আমীন/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :