বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পেলেন মানবদরদি লুসি হল্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৮:১১ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় জীবনের মায়া তুচ্ছ করে যুদ্ধাহত ব্যক্তিদের শুশ্রূষাকারী মানবদরদি ব্রিটিশ নাগরিক লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্টকে নাগরিকত্ব দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

সোমবার আন্তঃমন্ত্রণালয়ের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরিশালের জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান। তিনি বলেন, আন্তঃমন্ত্রণালয়ের সভায় লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্টকে নাগরিকত্ব দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই এ ব্যাপারে সরকারি আদেশ জারি করা হবে।

এর আগে বেশ কয়েকবার বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্ট। কিন্তু কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে তখন কোনো সাড়া পাননি। তাই প্রতি বছর ফি দিয়ে তার ভিসার মেয়াদ বাড়াতে হত। লুসি যে অবসর ভাতা পান, তা দিয়ে প্রতি বছর ভিসা ফি প্রদান করতে বেশির ভাগ টাকা খরচ হয়ে যেত।

এদিকে বিষয়টি জানাতে সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বরিশালের জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্ট’র সঙ্গে দেখা করেন। এরপর খবরটি জানান এবং তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ও মিষ্টিমুখ করান। এ সময় লুসি আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

এর আগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি বরিশাল নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আয়োজিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘ ৫৮ বছর ধরে বাংলাদেশে বসবাস করে জনসেবা দিয়ে যাওয়া ব্রিটিশ নাগরিক লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্টের হাতে দীর্ঘ মেয়াদি (১৫ বছর) ভিসাসহ পাসপোর্ট হস্তান্তর করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় তাকে নাগরিকত্ব প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

১৯৩০ সালের ১৬ ডিসেম্বর ইংল্যান্ডের সেন্ট হেলেন শহরে জন্ম গ্রহণ করেন লুসি। ১৯৬০ সালে বরিশালের অক্সফোর্ড মিশন হাসপাতালের সেবায়েত হিসেবে যোগদান করেন। অক্সফোর্ড মিশন স্কুলে বিনা বেতনে তিনি পাঠদান করেন। ১৯৭১ সালে যুদ্ধের সময় যশোর ক্যাথলিক চার্চে কর্মরত ছিলেন তিনি। যুদ্ধের সময় চার্চটি বন্ধ করে দেয়ায় নিজের জীবন বাজি রেখে নিকটবর্তী ফাতেমা হাসপাতালে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সেবা-শুশ্রুষা করেছেন। এছাড়া যশোর, খুলনা, নওগা, ঢাকা ও গোপালগঞ্জের আর্থিক অস্বচ্ছল ও দুস্থদের পাঠদান ও সেবা করেছেন তিনি। ২০০৪ সালে তিনি অবসর গ্রহন করার পরও তিনি বরিশাল অক্সফোর্ড মিশনে মানসিক বিকাশ ও ইংরেজী শিক্ষায় নিয়োজিত আছেন। এ দেশকে ভালবেসে ৫৮ বছর যাবত তিনি বাংলাদেশে রয়েছেন। তার আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ৮ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী বরিশাল সফরকালে লুসিকে ১৫ বছরের জন্য ফি মুক্ত ভিসা প্রদান করেন। এরই ধারাবাহিকতায় তাকে নাগরিকত্ব প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। লুসির বর্তমান বয়স ৮৮ বছর। তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বৃটেনে বসবাস করেন। তবে তিনি আমৃত্যু বাংলাদেশে থাকার ইচ্ছা পোষন করেছেন।

সাইফ আমীন/আরএআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :