১৫ বছর পর ফেঞ্চুগঞ্জের ৫ ইউপিতে নির্বাচন কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৯:২১ এএম, ২৮ মার্চ ২০১৮

দেড় দশক পর আইনি লড়াই শেষে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার পাঁচ ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল ২৯ মার্চ।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যেই মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে সব ধরনের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। মাইকিং, মিছিল, দলবদ্ধ প্রচার কাজও কড়াভাবে নিষেধ করা হয়েছে।

এদিকে, এবারের নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পাশাপাশি প্রবাসী প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় ভিন্ন মাত্রা এসেছে। সেইসঙ্গে চলছে রাজনৈতিক সমীকরণ। একইসঙ্গে শেষ মুহূর্তে এসে প্রার্থী এবং ভোটাররাও কষছেন নানা হিসাব-নিকাশ। তবে এবারের নির্বাচনে অংশ নেওয়া অধিকাংশ প্রার্থীই তরুণ।

ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়ন: উপজেলা সদরে অবস্থিত ১নম্বর ইউনিয়ন পরিষদ হলো ফেঞ্চুগঞ্জ। এই ইউনিয়নের জনসংখ্যা ২৪ হাজার ৯৪৮। ইউনিয়নে মোট ভোটার ১৪ হাজার ৭৮৩ জন। এই ইউনিয়নে ২০০৩ সালের ১ মার্চ সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। মামলা সংক্রান্ত জটিলতা অবসানের পর আগামী ২৯ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

মাইজগাঁও ইউনিয়ন : উপজেলার সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যা অধ্যুষিত ইউনিয়ন মাইজগাঁও। ৩৯ হাজার ৯৩২ জনসংখ্যা অধ্যুষিত এই ইউনিয়নের মোট ভোটার ১৯ হাজার ১৯২ জন।

ঘিলাছড়া ইউনিয়ন : ঘিলাছড়া ইউনিয়নে মোট জনসংখ্যা ৩২ হাজার ৫৫৯। ইউনিয়নের ভোটার সংখ্যা ১৬ হাজার ৬৩৭ জন।

উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়ন : ২০১১ সালে উত্তর কুশিয়ারা ও উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ নামে দুটি নতুন ইউনিয়ন গঠন করা হয়। ৪ নম্বর উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের মোট জনসংখ্যা ২০ হাজার ৫৬৩ জন। ভোটার সংখ্যা ১২ হাজার ৩২৭। নবগঠিত এই ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়ন : নবগঠিত ৫ নম্বর উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়নের জনসংখ্যা ২০ হাজার। মোট ভোটার সংখ্যা ৯ হাজার ৬৫৩ জন। উত্তর ফেঞ্চুগঞ্জ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া এই ইউনিয়নে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৪১ জন নির্বাচনি লড়াইয়ে মাঠে রয়েছেন।

ছামির মাহমুদ/এফএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :