তালাবদ্ধ ঘরে মা-ছেলের লাশ, অজ্ঞানে বেঁচে যায় রাইসা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৭:৫১ পিএম, ০১ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৫৩ পিএম, ০১ এপ্রিল ২০১৮

সিলেট নগরীর মীরাবাজারে পাঁচ বছরের এক মেয়ে শিশুর কান্নাকাটির পর একটি তালাবদ্ধ ঘর থেকে তার মা ও ভাইয়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার পরিতোষ ঘোষ জানিয়েছেন, নগরের মিরাবাজারে খাঁর পাড়ায় মা-ছেলেকে ব্যবসায়িক কিংবা পূর্ব শত্রুতার কারণে হত্যা করা হয়েছে। তাদেরকে ছুরিকাঘাতের পাশাপাশি শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় নিহত রোকেয়ার পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে রাইসা বেগমকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ এরই মধ্যে হত্যার কিছু উৎস পেয়েছে। তবে, এসব বিচার-বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। উদ্ধার করা শিশুটিকেও হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। কিন্তু, সে সময় রাইসা অজ্ঞান হয়ে পড়ায় হত্যাকারীরা তাকে মৃত ভেবে ফেলে যায়।

রোববার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য জানান পুলিশের এই ঊধ্বর্তন কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, হত্যাকারীরা অনেক সময় নিয়ে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। যে কারণে কেউ বিষয়টি টের পায়নি। শুক্রবার রাতেই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছি আমরা।

নিহত নারীর বাড়ি কুমিল্লার দাউদকান্দিতে। তিনি নগরের বারুতখানা এলাকার হেলাল মিয়ার স্ত্রী। হেলাল মিয়া বর্তমানে প্যারালাইজড হয়ে শয্যাশায়ী।

রোববার দুপুরে নগরের মিরাবাজারের খাঁর পাড়ার ১৫/জে নম্বর বাসা থেকে মা ও ছেলের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত ওই নারীর মোবাইল গত শুক্রবার বিকেল থেকে বন্ধ পাওয়া যায়।

এরপর ওই নারীর ভাই জাকির হোসেন বাসায় এসে কারও সাড়াশব্দ না পেয়ে বাসার মালিককে বিষয়টি অবহিত করেন। পরে স্থানীয় কাউন্সিলর দিনার খান হাসু ও পুলিশের সহযোগিতায় ডুপ্লিকেট চাবি দিয়ে দরজা খুলে মা-ছেলের মরদেহ দুটি রুমে পড়ে থাকতে দেখে।

ছামির মাহমুদ/এএম/জেআইএম