যুবলীগ নেতার সমকামিতার ভিডিও নিয়ে তোলপাড়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৭:৩৩ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৩৫ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০১৮
প্রতীকী ছবি

রাজশাহী মহানগর যুবলীগের এক নেতার একটি অশ্লীল ভিডিওচিত্র বিভিন্ন জনের হাতে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে এক কিশোরের সঙ্গে সমকামিতা করতে দেখা যাচ্ছে তৌহিদুল হক সুমন নামের ওই নেতাকে।

তৌহিদুল হক সুমন রাজশাহী মহানগর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। অশ্লীল এই ভিডিও নিয়ে মহানগর যুবলীগসহ রাজশাহীর রাজনৈতিক অঙ্গনে শুরু হয়েছে তোলপাড়।

স্থানীয়রা জানায়, সপ্তাহ খানেক আগে ভিডিওটি প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ করা হয়। এর কয়েক ঘণ্টা পর সেটি সরিয়ে ফেলা হয়। কিন্তু অনেকেই সেখান থেকে ভিডিওটি ডাউনলোড করে নেন।

এরপর তা এলাকার অনেকের মুঠোফোনে ছড়িয়ে পড়ে। বিশেষ করে নগরীর ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে এটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে এক কিশোরের সঙ্গে সমকামিতা করতে দেখা যায় তৌহিদুল হক সুমনকে।

অশ্লীল এই ভিডিও নিয়ে মহানগর যুবলীগসহ রাজশাহীর রাজনৈতিক অঙ্গনে শুরু হয়েছে তোলপাড়। তবে ভিডিওটি প্রযুক্তির সাহায্যে তৈরি করা বলে দাবি করেছেন সুমন। তিনি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার বলেও দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. নুরুজ্জামান টিটো বলেন, সুমনের অশ্লীল ভিডিও ফাঁসের বিষয়টি আমি জানি। ভিডিওতে যে কিশোরকে দেখা যাচ্ছে সে আমার ওয়ার্ডের বাসিন্দা না। ভিডিওটি কোথায় ধারণ করা হয়েছে তাও বোঝা যাচ্ছে না। তবে বিষয়টি প্রশাসনের তদন্ত করে দেখা প্রয়োজন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তৌহিদুল হক সুমন বলেন, এ ধরনের কাজ আমি করতে পারি না। ভিডিওটি প্রযুক্তির সাহায্যে বানানো। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। এটি নিয়ে আমি বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছি। রাজনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করতে প্রতিপক্ষরা এমন একটি ভিডিও ছড়িয়েছে।

এ ব্যাপারে রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সহ-সভাপতি মোকলেসুর রহমান মিলন বলেন, আমরা রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দেয়া দিক-নির্দেশনা মেনে চলি। বিষয়টি সাংবাদিকদের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। তবে বিষয়টি পরিষ্কার না। যে ভিডিওটি আপনাদের কাছে আছে সেটি সুমনেরই ভিডিও তাও পরিষ্কারভাবে বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, তথ্য-প্রযুক্তির কিছু বিষয় আছে। আপনারা যাচাই-বাছাই করুন, আমরাও করছি। এরপরও যদি কোনোভাবে তৌহিদুল হক সুমনের এমন বিকৃত যৌনাচারে লিপ্তের প্রমাণ মেলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :