কোটায় পুলিশে চাকরি নিতে সনদ জালিয়াতি, আটক ৫

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার (ঢাকা)
প্রকাশিত: ০৯:৩০ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০১৮

সাভারে পুলিশের চাকরি নিতে মুক্তিযোদ্ধার সনদ জালিয়াতির ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে চাকরির বিনিময়ে লেনদেনের জন্য রাখা নগদ পাঁচ লাখ ৪০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সাভার মডেল থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান এ তথ্য জানান।

আটকরা হলেন- ঢাকার ধামরাই থানার বাটুলিয়া গ্রামের মো. তোতা মিয়ার ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (২৪), একই থানার কালামপুর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে মো. মনির হোসেন (২৫), মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে মো. আয়নাল হোসেন (২৪), চান্ডিপাড়া হাতকোড়া (শাহাবেলিশ্বর) গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে মো. উজ্জল হোসেন (২৫) ও মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া থানার কোট্টা গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে মো. আব্দুল আলীম (২৬)।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান বলেন, এবার ঢাকা জেলায় ৮৩৬ জন পুলিশ সদস্য নিয়োগের প্রক্রিয়া চলমান। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা কোঠায় ৩৩ জন সদস্যকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হয়েছে। পরবর্তীতে তাদের দেয়া ঠিকানা এবং মুক্তিযোদ্ধার সনদ যাচাই-বাছাই করার সময় বাবা এবং দাদার নামে গড়মিল দেখা দেয়। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার সার্টিফিকেট অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট থানার কমান্ডারের মাধ্যমে ওই মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। এ সময় মুক্তিযোদ্ধারা জানান, তাদের এই নামে কোনো ছেলে নেই এবং পরিচিত কেউ পুলিশের চাকরির আবেদনও করেনি।

পুলিশ সুপার বলেন, চূড়ান্ত বাছাইয়ে মুক্তিযোদ্ধার সনদ জালিয়াতি করে অসৎ উপায়ে পুলিশের চাকরি নেয়ার চেষ্টা করায় প্রথমে আব্দুর রাজ্জাককে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আরও চারজনকে আটক করা হয়। এদের মধ্যে আয়নাল হোসেন নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে চার লাখ টাকা এবং আব্দুল আলীমের কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাদে আটকরা জানিয়েছেন- তারা একটি দালাল চক্রের মাধ্যমে ৮ লাখ টাকা চুক্তিতে জালিয়াতি করা মুক্তিযোদ্ধার সনদ দিয়ে চাকরি নেয়ার জন্য আবেদন করেন। তাই এ চক্রের সঙ্গে আরও কেউ জড়িত রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় আটকদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে বাকিদের আটকে অভিযান চলছে।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান, শরীফুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আল-মামুন/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :