র‌্যাবের ওপর হামলা, আ.লীগ নেতার ভাইসহ গ্রেফতার ৪

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৭:২২ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ | আপডেট: ০৭:৫২ পিএম, ২৭ মে ২০১৮
প্রতীকী ছবি

রাজশাহীতে র‌্যাবের ওপর হামলার অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় র‌্যাব-৫ এর ৩ সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে নগরীর কোর্ট স্টেশন বাইপাস এলাকায় মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর ব্যক্তিগত চেম্বারের সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

র‌্যাব সদস্যদের ওপর হামলার অভিযোগে যে কজনকে শনিবার রাতে গ্রেফতার করা হয়েছে তার মধ্যে আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুল আলম বেন্টুর ছোট ভাই খাদেমুল আলম মাসুমও রয়েছেন। বাকি তিন জন হলেন, বেন্টুর ঘনিষ্ট সহযোগী মাসুদ রানা (১), মাসদু রানা (২) ও শালবাগান এলাকার দুর্ধর্ষ ক্যাডার ওয়াকার আহমেদ রাসেল।

দায়িত্বরত অবস্থায় হামলার অভিযোগে র‌্যাব-৫ এর হাবিলদার হুমায়ন কবির বাদী হয়ে রোববার সকালে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় মোট ৯ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যার দিকে নগরীর কোর্ট স্টেশন বাইপাস এলাকায় মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর ব্যবসায়িক চেম্বারের সামনে দায়িত্বরত অবস্থায় লোহার রড ও লাঠি দিয়ে চারজন র‌্যাব সদস্যের ওপর হামলা করে বেন্টুর ছোট ভাই মাসুমের নেতৃত্বাধীন একদল সন্ত্রাসী।

সাদা পোশাকে দায়িত্বরত র‌্যাব সদস্যরা নিজেদের পরিচয় দেয়ার পরও তাদের কিল ঘুষি ও লাথি মারে বেন্টুর ভাই মাসুমসহ সহযোগী সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় র‌্যাবের চার সদস্য আহত হয়। ঘটনার পর আহতদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

এদিকে র‌্যাব সদস্যদের ওপর হামলার অভিযোগে শনিবার রাতে আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুল আলম বেন্টুর মুন্সিপাড়ার বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাবের একটি দল। এ বাসা থেকেই বেন্টুর ছোট ভাই মাসুমকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। অন্যদিকে র্যাবের অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে আওয়ামী লীগ নেতা বেন্টু পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে আত্মগোপন করেন।

এদিকে বেন্টুর ছোট ভাই মাসুম ছাড়াও নগরীর বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে অপর তিন সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া চিহ্নিত সন্ত্রাসী কনক, মাসুদ, কাওসার ও টাইগারকে ধরতে র‌্যাব সদস্যরা শনিবার রাতে ও রোববার দিনের প্রথম ভাগে অভিযান পরিচালনা করেন। তবে সন্ত্রাসীরা আত্মগোপন করেছে বলে র‌্যাব সূত্র থেকে বলা হয়েছে।

র‌্যাব সদস্যদের হামলার অভিযোগ প্রসঙ্গে রাজশাহীস্থ র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহবুবুল আলম বলেন, র‌্যাব সদস্যরা দায়িত্বরত অবস্থায় ছিলেন। ওই সময়ে সন্ত্রাসীরা তাদের ওপর হামলা করেছে। এমনকী সন্ত্রাসীরা রড ও লাঠি দিয়েও আঘাত করেছে র‌্যাব সদস্যদের ওপর। এই ঘটনায় নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় গ্রেফতারকৃত চারজনকে সোপর্দ করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

এদিকে কাশিয়াডাঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল ইসলাম বলেন, হামলার ঘটনায় র‌্যাব সদস্য হুমায়ুন কবির বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। গ্রেফতার হওয়া চার আসামিকে রোববার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এদিকে মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুল আলম বেন্টুর বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। উল্লেখ্য আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুল আলম বেন্টু গত কয়েক বছর ধরে পদ্মা নদীর বিভিন্ন স্থান থেকে বালু উত্তোলন করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন।

ফেরদৌস সিদ্দিকী/এমএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :