ফতুল্লায় বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০২:৫৪ পিএম, ২৪ জুন ২০১৮

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একাধিক রফতানিমুখী পোশাক কারখানার শ্রমিকরা ঈদের পর ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ব্যস্ত থাকার কথা থাকলেও বিভিন্ন দাবিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ফতুল্লার শিবুমার্কেট এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে অবস্থান নেয় কয়েকটি গার্মেন্টের কয়েক হাজার হাজার শ্রমিক। পরে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের ওসি মঞ্জুর কাদের শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করে সড়ক অবরোধ তুলে নেয়ার অনুরোধে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেয়।

শ্রমিকরা জানান, ফতুল্লার শিবুমাকেটের ঈদের আগে থেকে সাকুরা, রেডিক্যাল, ওসমান, আবির ফ্যাশন, ইউরোটেক্সের সীক গার্মেন্টসহ ৬-৭টি তৈরি পোশাক কারখানায় ঈদের আগে থেকেই নানা ধরনের সমস্যা চলে আসছিল। এর মধ্যে মালিকপক্ষ সমাধান না করে ঈদের ছুটি দিয়ে দেয়। আর ছুটির শেষে রেডিক্যাল গার্মেন্টের শ্রমিকরা সকালে কারখানায় এসে মূল গেইটে তালা দিয়ে আন্দোলন শুরু করে। পরে তাদের দেখে ওসমান গার্মেন্টের শ্রমিকরা আন্দোলন শুরু করে। এ দুটি কারখানার শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডে এসে অবস্থান নেয়। পরে সাকুরা, আবির ফ্যাশন, ইউরোটেক্সের সীক গার্মেন্টসহ ৬-৭টি কারখানার হাজার হাজার শ্রমিকরা রাজপথে নামার পর ফতুল্লার শিল্পাঞ্চল উত্তাল হয়ে উঠে। পরে তারা বিক্ষোভ ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে অবস্থান করে। এ সময় তারা ফতুল্লা মডেল থানার সামনে অবস্থান করে।

শ্রমিকরা আরও জানান, কারখানার মালিকরা তাদের পালিত সন্ত্রাসী দিয়ে শ্রমিকদের ওপর নির্যাতনসহ কথায় কথায় চাকরিচ্যুত করা এবং নিয়মন অনুযায়ী বেতন ভাতা পরিশোধ না করে উল্টো হুমকি দেয়। ঈদের ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থলে ব্যস্ত থাকার কথা থাকলেও মালিকদের কারণে রাজপথে নামতে বাধ্য হতে হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর কাদের জানান, শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের রাস্তা হতে সরানো হয়েছে। কারখানার মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে সমাধানের আশ্বাস দেয়ার পর তারা রাস্তা হতে অবরোধ তুলে নিয়ে তাদের সমস্যাগুলো লিখিতভাবে থানা পুলিশকে দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

শাহাদাত হোসেন/আরএ/পিআর